...

Best Poet Literary Quotes | Shabdodweep Bangla Kabita

Sharing Is Caring:

অরণ্য রোদন – তপন মাইতি

মাটির বুকে জলের হাহাকার
আকাশের যা অ্যাসিড বৃষ্টি!
গ্রামগুলো শহর আর শহরগুলো নগর হচ্ছে
ওদিক থেকে এগিয়ে আসছে কাঠুরিয়া
বিশ্ব উষ্ণায়ণ যুগে আগ্রাসী হয়ে পড়ছে দূষণ আর মরু
চারদিক তচনচ হয়ে পড়ছে খাদ্যশৃঙ্খল
জনসংখ্যা বাড়তে বাড়তে জনবিস্ফোরণে পৌঁছে গেছে
নদ নদী সাগরের জলতল বেড়ে উঠছে ক্রমশ
মানুষ বড় আত্মকেন্দ্রিক হয়ে পড়ছে
ছয়টি ঋতুর মধ্যে মোটামুটি চারটি ঋতুর প্রাদুর্ভাব দেখা দিচ্ছে
পৃথিবীতে প্রাকৃতিক দুর্যোগের পরিমাণ বেড়েই চলেছে
আজকাল মানুষ কোথায় নেই বলো তো?
চাঁদ মঙ্গল সূর্য……পরমাণু আণবিক থেকে হাইড্রোজেন বোমা
পৃথিবীর দুই মেরুর বরফ চাদর যা গলছে যে
আমরা কবে খড়কুটোর মত ভেসে যাবো তার ঠিকানা আছে?

আমরা ভেসে গেলেই বা কী…
আমরা দাবানল হলেই বা কী…
আমরা থাকলাম কী রইলাম বাঁচি কী মরি…
খেতে পরতে ঘুমোতে পারলাম কী পারলাম না তাতে কী…

মানুষের কাছের কেউ সামান্য হোঁচট খেলে
খেতে খেতে বিষম লাগলে বা কোথাও পড়ে গেলে
ছুটে আসে নিজের মানুষ তড়িঘড়ি…
এই পথ দিয়ে পৃথিবীর প্রথম প্রেমিক চলে গেছে।
এই পথ দিয়ে হয়েছে প্রথম সভ্যতার বিকাশ।
এই পথ দিয়ে শুরু হয়েছে প্রথম পাঠশালা।
এই পথ ধরে প্রথম শিখে ফেলেছে আগুন জ্বালানো।
এই পথ ধরে খুঁজে পেয়েছে সুস্থতার ভেষজ।
এই পথ ধরে খুঁজে পেয়েছিল বেঁচে থাকার প্রথম আশ্রয়।
এই পথ ধরে খুঁজে পেয়েছে প্রথম বেঁচে থাকবার খাদ্য রসদ।
এই পথ ধরে জানতে পেরেছিল লজ্জা নিবারণের আদিম বস্ত্র।
এই পথ ধরে শুরু হয়েছিল প্রথম জাগরণ বিপ্লব।

হে পৃথিবীর বুদ্ধি শ্রেষ্ঠ জীব
যেদিন প্রকৃতির খাম খেয়ালীপনার কাছে
তুমি যখন শিশুর মত অসহায়
সেদিন কেন কোনদিন তুমি ফিরে যাওনি!

‘দয়া করো ধ্বংস করো না আমায়…’
আমি সেই প্রথম আজীবন ভালোবাসা
তোমার ঘনিষ্ঠ নিবিড় বন্ধু অরণ্য…

হে পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ জীব
আমি উজাড় হয়ে চলে গেলে দেখার মত কেউ থাকবে না
আমি অনেক দুঃখ কষ্ট সহ্য করে প্রাণ বাঁচানোর জন্য
আমি অরণ্য আমি অরণ্য রোদন করছি।

কাছে এসে বসো – তপন মাইতি

কাছে এসে বসো
মুখোমুখি বসো
মনোযোগী হয়ে বসো
চাঁদকে কিছু বলো না
হয়,আজ তুমি আমাকে
নয়তো আমি তোমাকে বলবো
নিজেদের একান্ত নিজস্ব কথাবার্তা।

কাছে এসে বসো
পাশাপাশি বসো
আপন হয়ে বসো
কাছাকাছি বসো
ঘেঁষাঘেঁষি হয়ে বসো
ভালো করে বসো
নিজের হয়ে বসো
নদীতে কেউ ঢেউ তোলো না
আকাশটা হাট হয়ে দেখছে
ফুলের টোকায় হিংসে লেগে যাবে চাঁদের গায়ে
কাউকে কিছু বলো না
বুকে রাখো মাথা
কোলে রাখো মাথা
নীরবে নিশ্চিন্তে নির্দ্বিধায়
নদীটা যেমন প্রকৃতির কোলে মাথা রাখে
পাহাড়ের শরীর বেয়ে খুব যত্ন স্নেহে আদরে নেমে আসে
তবে পার্কের মত নয়
সদ্য কোন কিশোর কিশোরী বা কোন বিকেলের কলেজ জোড়ের মত নয়
দেখবে কি যেন একটা গান বেজে যাচ্ছে অনবরত
ওকে থামিও না…
গাঢ় সন্ধ্যায় অন্তরা মন্থরা হয়ে যাবে
ছাতিমতলার জলসায়
বাইরের সব কিছু ভুলে গিয়ে
একটু এমনভাবে কাছে এসে বসো
কাক পক্ষীও টের যেন না পায়
টের পেলে ভেবে নেবে সবাই বেপরোয়া, আরও কতকিছু…
মন্দিরা মন্থরা হয়ে যাবে
কোনো তরুণ তুর্কী আক্রমণ করে বসবে সোনার দেশ
শকুনি সাজিয়ে নেবে তার পাশার চাল
অর্থশাস্ত্র খুলে বসবে কোনো মানুষ
কাছে এসে বসো
পাশে এসে বসো
নিবিড় হয়ে বসো
ঘনিষ্ঠ হয়ে বসো জান্
দেখো, আজ কেউ খালি হাতে ফিরবো না।

নিখোঁজ – তপন মাইতি

মানুষ ঠকছে খাচ্ছে আঘাত ভীষণ
ঠকতে ঠকতে আঘাত খেতে খেতে
টেঁসে ফেঁসে যাচ্ছে সামান্য ব্যাপারে
বন্ধু নামক শব্দটা কানে ঠেকলেই
‘বুদ্ধু, সেটা কি খায় মাখে না মাথায় দেয়…’
মানুষ ঠকছে, ঠকতে ঠকতে শিখছে
দেওয়ালে পিঠ সেঁটে যাচ্ছে।

রাস্তার ধারে আজ কোন বয়স্ক গাছ দাঁড়িয়ে নেই
সবাই যেন একা একা
সবাই যেন পিছন ফিরে হাঁটছে
সবকিছু দেখেও না দেখার ভান করছে
মুখ ফিরিয়ে মুখ টিপে হাসছে
দেখে না দ্যাখার মত
নদীর পাড় খইছে, খইতে খইতে
যে যার আখের গোছা গোছাচ্ছে
মানুষ ধুঁকছে, প্রবল ভাঙচুর ঢাকছে
আলগা হচ্ছে যে যার সম্পর্ক।

আজ আমার স্কুল আমার নয়
আজ আমার সমাজ আমার নয়
আজ আমার মানুষ আমার নয়
আজ আমার আমার করা কোন কিছুই আমার নয়
আমরা ভাঙতে ভাঙতে
উঁচু নিচু কথা বলতে বলতে
সাধারণ মাছ গভীর জলে চলে যাচ্ছে
আর মানুষের খোদাই করা মূর্তিগুলো
কেবলমাত্র পাথর হয়ে যাচ্ছে
কোথাও কোন মেরামতির কাজ চলছে না
মানুষ খুব বেড়েছে…
কেউ কাউকে তোয়াক্কাই করেছে না
কেউ কারোর সাথে মিশতে চাইছে না
পাঁকে থাকবেন অথচ পাঁক গায়ে একটুও লাগবেই না

আমার মাঝ বুকের একটু ডানপাশে
জীবনের মহামূল্যবান সম্পদটা
হাতড়াচ্ছি
ওটা তো কিছুক্ষণ আগে পর্যন্ত
যথাস্থানে
নিরাপদেই ছিল।

উদীয়মান – তপন মাইতি

পৃথিবীকে এমন আগে কখনও দ্যাখেনি চাঁদ
এখনও মাটিতে রক্তাক্ত ক্ষয়াটে জীবন ছাদ।
চৈত্র শেষে হয়না বসন্ত শেষ মন প্রস্তুতির রাত
আর ওপারে নগর সভ্য প্রথম পাওয়া আলাপ হাত।
পাহাড় থেকে সুন্দরবনে ঘোমটা টানা মাঠের ধান
খামখেয়ালি ষড়ঋতু মৌসুম হাওয়ায় করছে স্নান।
নির্জন দুপুর ভীষণ একা নীরব নিথর সন্ধ্যা স্থির
বাদাবন সাঁকোয় পাহাড়ি উচামন উন্নত শির।
ভালবাসার আবেগ উচ্ছল রাতে গোলাপ হাতে হাত
ভাল থেকো ভাল রেখো সবাই সবার ভাতে ভাত।
যে যার তালে থাক্,নদীতে নোঙর করা নৌকা ঠায়
তারা খসে হায়! ভোগের নৌকা ছয়টি পাল দাঁড়ে বায়।
স্বপ্নের ভেতর বেজে ওঠে অপূর্ব গীটারের সুর
অনাবিল মৌনতা মাঝে বাজে ভাটিয়ালি দূর।
গোপন দোতারায় জেগে ওঠে কালো ভ্রমরের গান
নগরী সফর ব্যস্ত শহর নিবিড় সবুজের টান।
সবার মাঝে উঠছে দেখো পুব আকাশে সিঁদুর টিপ
সৃজন ভোর দেবে উপহার নব উদীয়মান দীপ।

বৈশাখ – তপন মাইতি

পুরনো বছর চলে যাওয়ার পর খবর পেলাম
এখনও কোকিল ডাকে, কচি আমের শরীর
ছুঁয়ে যায় আলতো ভাবে দখিনা বাতাস
তবুও ঘুমের মধ্যে দেখি বসন্ত কালের রেশ।
হয়তো কবে প্রথম ছাদের উপর দাঁড়িয়ে
‘উপহার’ ফ্ল্যাটের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়েছিল
কেননা বাস্তবে এই স্বপ্ন কুঁড়ে ঘরে মানুষ হওয়া
তনুর কাছে সোনার পাথর বাটি।
ঘুম ভাঙলে মনে হয় যে বসন্ত চলে গেছে
তার স্বপ্ন দেখে আর কী হবে?
অতীত দিন মনের পড়লে ডাণ্ডা স্রোত বয়ে যায়
তীব্র স্নায়ুবিক শিরদাঁড়ায়…
সে জেনে গেছে কোকিলের এখন ডাক
বিষন্ন হয়ে আতঙ্কে তড়পায় তার মন
এখন একটি মরে যাওয়া বসন্তের চেয়ে
নববর্ষের বৈশাখকে নিয়ে জীবন কাটিয়ে দেওয়া ভালো।

ছেঁড়া পাতা (১) – তপন মাইতি

দুর্যোগ ঝড়ে দেখি আমি
গাছে ছেঁড়া পাতা
মনে কষ্ট বাস্তব দুখে
ছন্নছাড়া যা তা…

নতুন পাতা ছিঁড়ে গেলে
ছেঁড়া হয়ে থাকে
মেনে নিয়ে বাঁচার লড়াই
জীবন দেখার ফাঁকে।

ছেঁড়া পাতা ছেঁড়া নিয়ে
কষ্ট নিয়ে ঝরে
সন্তুষ্ট হয় যোগ্যসূরি
জীবন সফল করে।

যা অসম্ভব তাই সম্ভবে
বিদায় নিয়ে বলে
নতুন আসুক নতুন ভাবে
নতুন সংগ্রাম চলে।

ছেঁড়া পাতা (২) – তপন মাইতি

যেভাবে লেখেন লেখক সেইভাবেই থাকে
দুঃখের বিষয় হলুদ হয়ে পড়ে পাতা
দুর্বল হয় বাঁধাই; বই আর পৃষ্ঠার সম্পর্ক
আলতো হাওয়ায় ফুরফুর করে ওড়বে বইয়ের পাতা
ডায়েরি মধ্যে ষোলো-একুশ নেই আপাতত আমার
যেখানে তার কথা ছিল সেখানে নেই সেই শেকড় গাছ
বলার মত অধিকার সময়ের কাছে পায়নি বলে
যেভাবে প্রেমে পড়ে প্রেমিক সেভাবেই প্রেম তার
মিলিয়ে দেখার অজুহাতে আমি যে নেই
সেটা খুঁজে দেখবার মানুষ দেখি না
কষ্টের বিষয় হারিয়ে যায় প্রিয় মানুষ
জীবনে রয় ছেঁড়া পাতার মতন।

ছেঁড়া পাতা (৩) – তপন মাইতি

পাতা ছিঁড়ছো? কিন্তু কেন? দোষ কি?
ভালো কিছু দেখলে কি হাত কসকস করে?
তোমার ওপর এমন জবরদস্তি হলে কেমন হবে?
চোখের সামনে ভালো কিছু থাকলে তাকাতে পারো না বুঝি?
গাছের পাতারা কিছু বলতে পারে না বলে
যা ইচ্ছে তা করতে পারবে?
তোমার ভাবা উচিত গাছেদের মত তোমারও একটা জীবন আছে
তোমাদের মতন গাছেদেরও সুখ দুঃখ আছে
তাদেরও অভিব্যক্তি বিবর্তন আছে
অকালে ছিঁড়ে নেওয়া সদ্য কিশলয়ের মতন
তোমার জীবন পুস্তক থেকে ষোলো একুশ ছিঁড়ে নিলে
বুঝতে পারবে কি কখনও ছেঁড়া পাতার দুঃখ কষ্ট….

ছেঁড়া পাতা (৪) – তপন মাইতি

ছেলেটা একদিন পড়েছিল মহুয়ার প্রেমে
সবকিছু তার সুন্দর লেগেছিল সেদিন
স্কুল জীবনে হঠাৎ করে কথা বন্ধ করে দিল
কোন কারণ ছাড়াই মন খারাপের বিকেল
তারপর কোন মেয়ের দিকে চোখ তুলে তাকায়নি ছেলে…
বন্ধুবান্ধব সংখ্যা কমলো, নিজেকে বুঝল বোঝালো
ঘুম নেই খাওয়া নেই কথা নেই আনন্দ নেই সুখ নেই
এভাবে চলতে পারে না জীবন
এত নেই নিয়ে বাঁচতে গেলে ব্যস্ত থাকতে হবে তাকে
পরে বুঝেছে ছেলেটা জীবনে কিছু কিছু ছেঁড়া পাতার প্রয়োজন আছে
নচেৎ নিজের পায়ে শক্ত মাটিতে দাঁড়ানো যাবে না…
সবকিছু তার কাছে অপূর্ব লাগে এখনও
কিছু কিছু ছেঁড়া পাতা আগলে বেঁচে থাকতে হয়

ছেঁড়া পাতা (৫) – তপন মাইতি

ব্যর্থ নায়কের গুরুত্বপূর্ণ কথাগুলো
ছিঁড়ে ছিঁড়ে গুছিয়ে রাখে সে
তার জীবনের সাথে মিলে যাওয়া
কথাগুলো শুধুমাত্র কথা নয়
এই ছেঁড়া ছেঁড়া পাতাগুলো জমিয়ে জমিয়ে তার
একদিন একটা জীবন হয়ে গেল
জীবনে প্রথম ও শেষ পৃষ্ঠা ছিঁড়ে ছিল সে তার
মনের মানুষের ডায়েরির গোপন চিঠি
যেখানে তার নামটাই লিখে কেটে দেওয়া হয়েছিল
বর্তমানের পাতা ছিঁড়ে ফেললেও
অতীতের ইতিহাস থেকে
জীবনের পাতা কখনও ছিঁড়ে ফেলা যায় না।

নববর্ষের চাঁদ – তপন মাইতি

জীর্ণ পাতা ঝরিয়ে উঁকি দেবে কিশলয়
গভীর রাতের পর যেমন আসে ভোর
বসন্তের পর আসে গ্রীষ্ম
হাত পাখায় সামলাচ্ছে না অস্বস্তিকর গরম
হালখাতা খুলে বসেছে একটা স্বপ্নের আকাল
মাঝে মধ্যে হালকা বাতাস উড়িয়ে দিচ্ছে চুল
ঘাম মুখে লেপ্টে যাচ্ছে তা…
কতরকমের ব্যঞ্জন রেঁধে রেখেছে মা, বাবার অফিস ছুটি
নীমপাতা কলাপাতায় হলুদ গায়ের জেল্লা বাড়ায়
আগের বছরে কে কি করবে তার তোড় জোড়
চাঁদ আমার ডানপাশে
আলোর মিহিন হীরে কুচি দিচ্ছে ছড়িয়ে
পুদিনা পাতা মেহেন্দি গাছের মাহেন্দ্রযোগ
নতুন ভাবে পথ চলবে বলে
ঈশান কোনে কোনে আগুন জ্বালাচ্ছে কে?
লাল শাড়িতে আলতা পায়ে হলুদ দেবে তাকে
ভালোবাসায় বুঁদ হয়ে বসে আছে সে
তোমার জন্য পাগলামি এটা গোপন রাখো
নচেৎ কিভাবে উপভোগ করবে
কোমল জ্যোৎস্নার চাহনির সৌন্দর্য?
কিভাবে বুঝবে তোমাকে তার খুব পছন্দ?
জীবনের হতাশা গ্লানি আঘাত দুঃখের কান্না
ব্যর্থতা সব মুছে দিয়ে স্বস্তিক চিহ্ন এঁকে
মনের জোরে শক্ত হাতে হাল ধরেছে
নরম জ্যোৎস্নার হাসি মেলেছে নববর্ষের চাঁদ।

জ্যৈষ্ঠ চাঁদ – তপন মাইতি

আমার মাথার ওপর আজ্যৈষ্ঠের চাঁদ
লেবুগাছটার নীচে এখনও সূর্যের তেজ কাটেনি
নতুন বিয়ে হওয়া একটা নায়কের মত
জ্যৈষ্ঠ চাঁদ বলতে পরিণত পরিপূর্ণতার বড় চাঁদ ধরতে পার
গরমের উৎকণ্ঠায় স্থির নারকেল গাছ
কেন জানি না আজ শুধু চোখ পড়ছে
জ্যৈষ্ঠের চাঁদ ও তার জ্যোৎস্নার ওপর
ভাবছি আর নিজে নিজে হেসে ফেললে
নাকি নতুন প্রেমে পড়া বলে
ভারি কিছু অসহ্য আর খিটখিটে মেজাজ
গরমে যৎসামান্য কিছু তরল খাদ্য সম্বল

কী সৌভাগ্য!আজ জানতে পারল
কেমন করে ভালোবাসলে
বুঁদ হয়ে থাকে মানুষ
কী সৌভাগ্য আমার!আজ জানতে পারলাম
যাকে মনে মনে ভালোবাসি সেও মনে মনে
আমাকে চায়
তুমি যদি প্রেমে মুগ্ধ হয়ে থাকো
তাহলে রাতের চাঁদের
আকার ইঙ্গিত জ্যোৎস্না
সৌন্দর্য লাবণ্য সৌভাগ্য গ্রীষ্মকাল
কিংবা উপভোগ করতে পারবে জ্যৈষ্ঠের চাঁদকে।

গ্রীষ্মের চাঁদ – তপন মাইতি

সেই সর্ব সুখের মত নীল সরলতা
জ্যোৎস্নার প্রথম গোলাপ দিয়েছিল
ইদানিং ভীষণ অসহ্য গরম জ্বালা
একটু সজাগ দৃষ্টিতে তাকালে
বুঝতে দুঃখ কষ্ট বিরহের বেদনা
দরজা জানালা হাট হয়ে খোলা
চাঁদ যে মনের আয়না
গভীর রাত পর্যন্ত চোখে ঘুম নেই
অন্ধকার ঘেমো নদীর ঝিঁঝিঁর ডাক
নিবিড় স্নান সারবে তেমন কেউ নয় বোধহয়
তুমি কি আকাশে চরে বেড়াবে এভাবে একা?
যেভাবে একটু স্বস্তি খোঁজে
‘গন্ধরাজ’ জোড়েরা সহে যাওয়া গরমে?
হে গ্রীষ্মের চাঁদ পোশাক পড়তে
কি বিরক্ত অস্বস্তিকর!
জীবনে চাঁদ হয়ে এলে চাঁদ করে রাখতে হয়।
দূরের স্বর নিক্ষেপ হৃদয়ের কাছে
গান হয়ে বেজে ওঠে গ্রীষ্মের চাঁদ
একটা চাঁদ হয়ে উঠতে পারবে না?
ভোর হবার আগে ডেকে নিও চাঁদ।

বর্ষা চাঁদ – তপন মাইতি

ভেবেছি তুমি আমায় ভুলে গেলে কীভাবে?
যেভাবে কাছে পাশে ঘুরঘুর করতে সর্বদাই
তাকে কদিন যাবৎ যে পাত্তাই পাওয়া যাচ্ছে না…
তোমার অভাবে বুকটা হাহাকার করে ওঠে
গ্রীষ্মের তীব্র তাপন দাহে যেভাবে শুকিয়ে
উঠেছিল মাটির হৃদয় প্রকৃতির জীবন সত্ত্বা
তা মাত্র দিনটা তিনেক বর্ষামুখরে ভাসালো সব
সাদা ছবি আর সব জলময় করে দিল বর্ষা
হা করা তৃষ্ণার্ত খুব মাটির বুক তৃপ্ত হল
যেভাবে বিরহে চেনা যায় নিবিড়তার প্রেম
তার জন্য কি আমার থেকে আড়ালে রাখছ মেঘ?
মেঘকে কথা দিয়েছ যে সমাজ সেবা করবে?
আমার ভালোবাসা এত ঠুনকো নয় যে এত
সহজে ভুলে থাকা যায় এ বিশ্বাস অটুট থাকবে যে…
প্রবল সৃষ্টি সৃজন সৌন্দর্য গুণ নিয়ে আসবে
বর্ষা চাঁদ ছেড়ে যেতে পার না আমি জানি
অবশ্য যে সে আশা ভরসা রাখতে পারি
তুমি চাঁদ আলো ছড়ানো বন্ধ করলে আঁধার
হৃদাকাশে অন্ধকার বেড়ে যায় তুমি এসো…
বর্ষা চাঁদ সে বিশ্বাস রাখে ভুলবে না কখনও
মেঘের আড়াল থেকে বেরিয়ে বর্ষা চাঁদ…

শারদীয়া চাঁদ – তপন মাইতি

প্রথম ভোরের আলো ফোটার আগে
যখন শিউলি মাটি ছোঁয়
দুর্বার ডগায় তখন হীরে মতির শিশির
প্রকাশ হওয়ার আগে ডেকে ওঠে মোরগ
দখিনা সমোষ্ণ সমীরণ অপেক্ষারত
ধানের শীষ দিয়ে ঝরে পড়ছে প্রথম জলবিন্দু
পেঁজা তুলোর পানসি ওড়ে মুক্ত প্রেম বিহঙ্গ
পুজো পুজো গন্ধে উৎসর্গ করতে চায়
হাতের মুঠোয় আমলকী জীবন
ঢাক বাদ্যি বেজে ওঠে এক হৃদয় কাশ
শান্ত নদীর মাঝি এখনও ভুলতে পারেনি পুরোপুরি বর্ষাকে
ভাটিয়ালি গানে এক বনফুল মাথা দোলাতে দোলাতে
মনে দুঃখে বলছে ‘মায়ের পায়ের ফুল হয়ে ফুটে উঠতে পারব না কখনও….’
যেখানে মেঘ সেখানে বৃষ্টির মত শারদীয়া চাঁদ
ঘুরে ঘুরে দেখে নিচ্ছে একশো আটটা অকাল বোধনের পদ্ম ফুল
যেমন কাঁটার জন্য গোলাপ তার সৌন্দর্য ধরে রাখে
শারদীয়া চাঁদ ভ্রমণ করছে হৃদয়ের বনতট।

বাস্তবতা – তপন মাইতি

কাল কী হবে কেউ বলতে পারে না জেনেও
জ্যোতিষীকে হাত দেখায় লোকজন
এই তো কদিন হল বল্-পেনের জন্ম হয়েছে
জীবন সম্বন্ধে সেরকম কতটুকু জানবে
নতুন কিছু নতুন কিছু করার তাগিদে
এগিয়ে যাচ্ছে এভাবেই
মানুষ এটা হয়তো জানে না
প্রকৃতির ঊর্ধ্বে কেউ নয়
মানুষকে এখনও এটা শিখে উঠতে পারল না।

পিওন – তপন মাইতি

শঙ্খচিল উড়ে যাও এই মুহূর্তে
জ্যৈষ্ঠের অসহ্য গরমে
আমার প্রিয়া আনমনে একা
উদাসী বাউলের মতন এলানো চুল
বিকেলের গড়া রোদে একা কাজ করে
ওকে বলে দিও বৃষ্টি পড়লে যাব
উঠোনের লজ্জাবতী গাছটা শুকিয়ে উঠছে
ওকে বলে দিও কোন ভুল না করতে
যাও ওকে শুধু বলে দিও আসছি
যে পথের রেখায় চিহ্ন ফেলে ফেলে এসেছি
সেই পথ দিয়ে যাব
বর্ষাতে নদীটি যৌবনা হলে
এক ঘর ‘মেঘদূত’ নিয়ে যাব
এই খবরটা সঙ্গে নিয়ে যেও কিন্তু…

জাতিস্মর – তপন মাইতি

অসাধারণ!!!
নাকি ধার করে নিয়ে লেখা কাব্য?
যদি না হও তবে যথার্থ সৈনিক
সাহিত্যের কাছে পরম পাওয়া
সমাজের কাছে বিপ্লবের মশাল
আর অন্যায় অত্যাচার শোষণের কাছে
তুমি তীব্র কটাক্ষ প্রতিবাদ
ক্ষমতার অপব্যবহার বিরুদ্ধে
শুধরে নেওয়ার একটা বড় সুযোগ
যখন এগুলোকে কবিতা বলে
বুকে টেনে নাও
ওটাই আমার পরম প্রাপ্তি জীবনের অভিজ্ঞতা মাত্র
আজ সত্যি সত্যি প্রশংসা করছ?
নাকি আড়ালে দেখে নিচ্ছো সিঁড়ি ওঠার ধাপ?
অবশেষে একরাশ শূন্যতা নিঃসঙ্গতা
অনুকরণ করে পথ অনুসরণ করে বললে
‘দেখ একদিন তোমার আলো রবিবটকে ছাড়িয়ে যাবে…
সত্যি বলতে কী রবিবট রবিবট থাকবে
তাঁকে ছাপিয়ে আকাশ দেখার মত
ভাগ্য আর হিম্মত কোনটাই আমার নেই বলে
এই জ্যৈষ্ঠের তীব্র তপন দহনে
রবিবট পদতলায় আশ্রয় নিয়েছি
এ একান্ত মনোবাঞ্ছা বেঁচে থাকার…

খাদ্য সংকট – তপন মাইতি

সেদিন প্রকাশ্য রাস্তায় গাড়ি থামালেন এক অফিসার
সর্বহারা মানুষগুলোর সবকিছু এই পথ
ঈশ্বর নামক বাবুরা কীভাবে দেখছেন এটাকে?
বাঁটোয়ারা নীতিতে এমন পক্ষপাতিত্ব করলে কেন?
সারাদিনের পর ভার্চুয়ালে একটা শুটিং শুটিং স্ট্যাটাস
দিলে শুধু শিক্ষিত আভিজাত স্ট্যাটাস ফ্যাশন হয়ে যায় না
একদল কঙ্কালসার অপুষ্টির মুখে দুবেলা দুমুঠো খাবার
তুলে দিতে পারলেই জীবনের মর্মভেদে কেউ বেকার থাকবে না

ক্ষণিকের অতিথি – তপন মাইতি

নারকেল বাকলের মতো জোড়া ভ্রু
ফরসা গালে সুশ্রী টোল
সোনালী দিনের মতো ঝকঝকে বিজ্ঞাপন দাঁ
বর্ষায় উথলে ওঠা জোয়ারে নৌকা তিল
অপেক্ষা আটকে রাখা নখ
এক টুকরো ভিক্টোরিয়ার বিকেল
গঙ্গার ঘাটে ডোবানো আলতা পা
পাখির মত চোখ
অনুভবের যোগ্য হৃদয়
গীটার বাজানো আঙুল
নিকোটিন না ছোঁয়া ঠোঁট
আলতো স্পর্শে সব টেনশন মুক্ত
জোয়ারের মতন নিবিষ্ট শ্বাস

কে গো তুমি ঘন নীলে ঢেলে দিলে কালি?
ট্রেন চলে গেল স্টেশনে
আমি বসে আছি পাশের সিটটি শূন্য

তপন মাইতি | Tapan Maity

Buddhist philosophy and Sudhindranath’s poetic thought | 2023

Political Consciousness of Marquez | মার্কেসের রাজনৈতিক চেতনা | Article 2023

Rabindranath Thakur in social consciousness 2023 | Bengali Article

Lost music and culture in Bengali wedding ceremonies | Bengali Article

Bangla Kobita Abritti Songs | Mixed Kobita Bengali Kobita | Sound of bangla kobita lyrics | Sound of bangla kobita in english | Sound of bangla kobita mp3 download | bluetooth bandopadhyay kobita | bratati bandyopadhyay kobita lyrics | bratati bandopadhyay kobita mp3 download | Bangla Kobita Abritti | Best Bangla kobita MP3 Songs | Kobor Bangla Kobita.mp3 | Hits of Bratati Bandopadhyay | Bangla kobita music | Bangla Audio Book | Esho Abritti Kori | Bengali Recitation | Kobita Lyrics Poetry In Bengali | Shabdodweep Web Magazine | High Challenger | Shabdodweep Founder | Sabuj Basinda | Bengali Poetry | Bangla kobita | Poet Literary Quotes 2024 | Poetry Collection | Book Fair 2024 | bengali poetry | bengali poetry books

Poet Literary Quotes pdf | Bengali Poem Lines for Caption | bangla kobita | poetry collection books | poetry collections for beginners | poetry collection online | poetry collection in urdu | Poet Literary Quotes Ebook | poetry collection clothing | new poetry | new poetry 2023 | new poetry in hindi | new poetry in english | new poetry books | new poetry sad | new poems | new poems in english | new poems in hindi | Bengali Poem Lines for Caption in pdf | new poems in urdu | bangla poets | indian poetry | indian poetry in english | indian poetry in urdu | indian poems | indian poems about life | indian poems about love | indian poems about death | Best Bengali Poetry Folder | Best Bengali Poetry Folder 2023

story writing competition india | story competition | poetry competition | poetry competitions australia 2023 | poetry competitions uk | poetry competitions for students | poetry competitions ireland | Bengali Poem Lines for Caption crossword | writing competition | writing competition malaysia | Bengali Poem Lines for Caption in mp3 | writing competition hong kong | writing competition game | Best Bengali Poetry Folder pdf | Trending Poet Literary Quotes | Poet Literary Quotes – video | Shabdodweep Writer | bee poem | poem about self love | story poem | poetry angel | narrative poetry examples | poetry reading near me | prose poetry examples | elegy poem | poetry reading | poetry websites | protest poetry | prayer poem | emotional poetry | spoken word poetry | poem about god | percy shelley poems | jane hirshfield

spiritual poems | graveyard poets | chapbook | poems about life | poems to read | English Literature | Poet Literary Quotes examples | poems about life and love | elizabeth bishop poems | poems about women | sister poems that make you cry | famous quotes from literature and poetry | mothers day poems from daughter | poem about community | Poet Literary Quotes Ranking | positive Best Bangla Kobita Collection | Bengali Poem Lines for Caption about life struggles | toni morrison poems | good bones poem | google poem | funny poems for adults | inspirational poems about life | friendship poem in english | paul laurence dunbar poems | freedom poem | sad poetry about life | freedom poem | sad poetry about life

Natun Bangla Kabita 2023 | Kobita Bangla Lyrics 2023 book | New Poet Literary Quotes | Writer – Poet Literary Quotes | Top Writer – Natun Bangla Kabita 2023 | Top poet – Natun Bangla Kabita 2023 | Poet list – Kobita Bangla Lyrics 2023 | Archive – Poet Literary Quotes | Bangla Full Kobita | Online Full Kobita Bangla 2023 | Full Bangla Kobita PDF | New Bangla Kabita Collection | Shabdodweep Online Poetry Story | Poetry Video Collection | Audio Poetry Collection | Bangla Kobitar Collection in mp3 | Bangla Kobitar collection in pdf | Indian Bengali poetry store | Bangla Kobita Archive | All best bengali poetry | Indian Poet Literary Quotes | Best Poems of Modern Bengali Poets | Best Collection of Bengali Poetry in pdf | Bengali Poetry Libray in pdf

Autograph of Bengali Poetry | India’s Best Bengali Writer | Shabdodweep Full Bengali Poetry Book | Bengali Poetry Book in Google Bookstore | Google Bengali Poetry Book | Shabdodweep World Web Magazine | Shabdodweep International Magazine | Top Poems of Modern Bengali Poets | Bangla Kobita in Live | Live Poet Literary Quotes | Bengali Poetry Recitation Studio | Sabuj Basinda Studio for Bengali Poetry | Bangla Kobita Sankalan 2023 | Shabdodweep Kabita Sankalan | New Bengali Poetry Memory | History of Bengali Poetry | History of Bangla Kobita | Documentary film of Bengali Poetry | Youtube Poetry Video | Best Bangla Kobitar Live Video

Live Video Shabdodweep | Bengali to English Poetry | English to Bengali Poetry | Bengali Literature | Full Bengali Life of Poetry | Bangla Kobita Ghar | Online Kabita Archive Library | New Bengali Poetry House | Full Bengali Poetry Collections PDF | Library of Bangla Kobita | Bengali Poetry and Story | Bengali Poetry Writing Competition | World Record of Bengali Poetry Writing | Peaceful Poetry | Online High Trend Bangla Kobita Selection | High Trend Bangla Kobita translation in english | High Trend Bangla Kobita | High Trend Bangla Kobita for instagram | romantic bengali poem lines | bengali short poem lyrics

Leave a Comment

Seraphinite AcceleratorOptimized by Seraphinite Accelerator
Turns on site high speed to be attractive for people and search engines.