...

Bangla Kobita Caption Ideas | Best Bengali Poetry

Sharing Is Caring:

Bangla Kobita Caption Ideas – Santanu Guria

ব্যথা – শান্তনু গুড়িয়া

বুকের ভিতর ব্যথার মোচড়
কোঁচড় ভরে শালুক এনে দিলে…
হে নাবালিকে, ওই চোখের তারায় কী রেখেছিলে !
আমায় এক ঝটকায় খাদের কিনারায় ঠেলে দিলে।
শুধুমাত্র আঙুলের আলতো ছোঁয়ায়
হাজার হাজার অশ্বশক্তি ঢেলে দিলে।
পায়ের পাতায় ঠোঁট রেখেছি,
রেখেছি ওই লজ্জারুণ জঙ্ঘার জড়ুলে
টগবগে এক ঘোড়সওয়ার ছুটল দু’হাত তুলে —
নিরুদ্দেশের পথে পথে
উড়িয়ে ধুলো খুশির রথে
আনন্দমাতন জাগল যেন
নদীর চরের বিহ্বল কাশফুলে…

আজ দহনভরা নিঝুম রাতে সেসব
বলো কী করে যাই ভুলে ?

বিদায় বেলায় – শান্তনু গুড়িয়া

সুতোর যেমন লাটাই থাকে
জলের থাকে ভাপ গো,
এলোমেলো কাটাই ঘুরে
মনে খুচরো পাপ গো।

দূর ছি: করো যতই তুমি
আসবো তবু কাছে,
ঈশ্বরী তো তোমায় মানি
আমার কে আর আছে !

সকাল থেকে দুপুর বেলা
গনগনে রোদ তাপে,
মনের ভিতর ভাবের খেলা
তোমায় কেবল মাপে।

ঘাপটি মেরে ইচ্ছে ফণা
মুঠোর ভিতর কাঁপে,
অসময়ের উন্মাদনা
বৃষ্টি হয়ে ঝাঁপে।

বুকের ভিতর ভিজে যাওয়ার
গল্প অনেক আছে,
মুখ ফিরিয়ে বিদায় বেলায়
আসবে নাকো কাছে ?

রুমাল জুড়ে অশ্রু আঁকা
নাই তো কিছু দেয়ার,
পুড়িয়ে দেবো লেখার খাতা
ছাই কুড়োবে কে আর!

ঠুকরেছে কোন ঝোড়ো কাগে – শান্তনু গুড়িয়া

ইচ্ছে যখন হাওয়ায় মেশে
শরীরে তখন উল্কা এসে
আদর করে।
সংকোচ আর লজ্জা মনে
ঝেড়ে বসাই শীর্ষাসনে
বেদির পরে।।
ধুলোঝড় উঠল বুঝি
মাংসল সেই ছিদ্র খুঁজি
অন্ধকারে।
বাড়তে বাড়তে বিপুল হলে
জোর ধাক্কায় খেলার ছলে
বন্ধ দ্বারে।।
বাঁধ ভেঙে যায় জলের তোড়ে
প্রদোষ কাঁপায় নেশার ঘোরে
অনুরাগে।
আসল কথা বলছি শোন
সত্যি যেন ঠুকরেছে কোন
ঝোড়ো কাগে।।

বিচিত্র প্রেম – শান্তনু গুড়িয়া

যদিও জ্বালিয়ে খাচ্ছে হাড়-মাস
তোমার দাসস্য দাস
কী এক অমোঘ টানে
মর্মরিত আহ্বানে
বারবার ফিরে আসে চিৎকার-চিত্রিত ক্যানভাসে

চিত্তে তার তুমুল তাড়না
উন্মাদিনী তোমায় ডাকে, সোনা
ভিটেমাটি যাক উড়ে
আকাশ-পাতাল ফুঁড়ে
হুলুস্থুল বাঁধাতে পাগল এক ধেয়ে আসে।

সমস্ত ব্রহ্মাণ্ড ঘেঁটে ফেরে প্রেমিক চাতক
বিকৃতির স্বীকৃতিতে না হয় হোক সে পাতক
কখন ঘুমিয়েছো সতী
সাজিয়েছে সে সন্ধ্যার আরতি
প্রদীপ হয়ে পাহারা দেয় বিছানার পাশে।

সহযাত্রীকে – শান্তনু গুড়িয়া

হুড়মুড়িয়ে চললে কোথায়
কীসের তোমার তাড়া এমন ?
সঙ্গে থাকো, পাশে থাকো —
কেকের ভেতর কিসমিস যেমন।
অথবা পাঁকের ভিতর পাঁকাল মাছে
কেউ কি তোমায় ডাকছে কাছে
এমন কি কেউ সঙ্গী আছে
পাহারা দেয়, পা হারাও পাছে।
জিরিয়ে নাও হে, কীসের তাড়া
চাহিদাগুলো সব হতচ্ছাড়া
ঘোরায় বুঝি নাকে দিয়ে দড়ি
মাথার উপর ঘোরায় ছড়ি ?
চলছো যে পথের বুকের ওপর
জড়িয়ে তাকে আদর করো,
মুহূর্তগুলো সাজিয়ে যত
শূন্য তোমার ঝুলি ভরো।
যাচ্ছি সবাই সেই মোহনাতেই
তুমি-আমি হারিয়ে যাব অজানাতেই।
ভাসতে ভাসতে আস্তে চলো
হাসতে হাসতে গল্প বলো
কীসের তাড়া, তাড়া কীসের ?
রিটার্ন টিকিট কাটাই আছে
নো চান্স তাই ট্রেন মিসের !

লোলুপ – শান্তনু গুড়িয়া

মনের জঙ্গল থেকে হুংকার ছাড়ে
ডোরাকাটা বাঘ
তার সংযম নেই, দুঃসাহস আছে
ন্যায়-অন্যায় বোধ নেই, দুঃশাসন আছে
সে শেখেনি নতজানু হতে
কিংবা চারা পুঁততে মনের মাটিতে
সে জানে কেবল গরম রক্ত চাটিতে
সুদৃশ্য শিংওলা হরিণীর মাথা
ধীরে ধীরে নড়ছে দু’দিকে
অন্ধকারে ওৎ পেতে থাকে শিকারির চোখ
যন্ত্রণার জানলা থেকে যা দেখেনি কোনওদিন
বনগন্ধে মাতোয়ারা পতঝর-পবন
শুধু হিংস্রতায় হেসে ওঠে লোলুপ জীবন !

আপনভোলা – শান্তনু গুড়িয়া

একটুখানি ওম চেয়েছি তোমার কাছে
আছে, তবু ধার দেবে না ?
ভিতরে কি ডেকে নেবে না ?
লাথি-ঝাঁটা পেলাম শুধু জীবন ভ’রে
শরীর তবু চাইছে স্পার্ক
যেমনটি চকমকি পাথরে
অক্ষরে-অক্ষরে শুনবো আমি তোমার বাণী
তুমি শুধু তোমার জন্য শোনো রাণী
একে একে সাজতে পারি মেষ, মৎস্য, মকর
করতে পারি সমস্ত রাত ননস্টপ বকর-বকর
অবোধ এমন ঝাঁপ দিতে চায়
পতঙ্গ-পরান
প্রেমিক এমন ফিনিক্স পাখির যেমন ভস্মোত্থান
দেয় না ফাঁকি —
মিলবে না কি ?
ও আগুনরাঙা গর্ভকেশর,
তোমার জন্য বসে আছি
আপনভোলা লিঙ্গেশ্বর।

পিতলের গ্লাস – শান্তনু গুড়িয়া

জট ছাড়াতে ছাড়াতে জট পাকিয়ে যাচ্ছে মগজে
ঢোলা প্যান্ট পরে হেঁটে যাচ্ছে শৈশব
যে-জামা কোনওদিন ইস্তিরি দেখেনি
যে-দুপুর কখনও ভাতঘুম শেখেনি
ঘুড়ি উড়ছে আর লাটাই হাতে ছুটছে কিশোর
যে-দিন গেছে, তা কি একেবারে গেছে ?
নাকি কোথাও এখনও সেই ছেলেবেলা-গ্রাম আছে ?
বিস্তৃত হলুদ সরিষার ক্ষেত, শিরশিরে শীতের হাওয়া
গোড়ালিতে কামড় দেওয়া শেয়ালকাঁটা
একটু হাত ধরার আনন্দে নেচে ওঠা বাল্যপ্রেম
চোখের কোণ ভিজে আছে অসমাপ্ত কথায়
বুকে দগদগে ক্ষতাক্ত ইতিহাস আর
ভুলে ভরা ভূগোলের ধাঁধা
সুবোধ বালক সাবান ঘষে ঘষে চেপে রেখেছে কাঁদা
স্মৃতির পুকুর পাড়ে আজও চমকায়
ঘষামাজা পিতলের গ্লাস।

ক্ষুধা – শান্তনু গুড়িয়া

এখনও শরীরে পাক খায় জন্তুর মতো খিদে
রাক্ষস দেখেছো? খোক্কসের গল্প শোনোনি কোনোদিন ?
জিভ যদি হ্যাংলার মতো লকলকায়, তোমার কী অসুবিধে ?
আমার ভালো লাগে ঝাল ঝাল কষা মাংস আর পানীয় রঙিন
এসো দু’হাতে পরিচর্যা করি তোমার বাগান
পাঁজরে আছড়ে পড়ে ভালোবাসার দুরন্ত সুখ
আস্ত শরীর দিয়ে চিনতে চেয়েছি তোমায়
আদর করি,আরতি করি — রতি-বিরতির দুঃসহ প্রহর পেরিয়ে
আমরা এসেছি দেহের দেউলিতে আবার
এই শীতঘুমের রাতে তুমুল কাঁসর-ঘন্টা বাজাও
হাড়গোড়ে ঘুণ ধরার আগে আমি হই ক্ষুধার্ত ট্রাক্টর
কর্ষণে কর্ষণে তোমার ওই বাগানের মাঠ
এলোমেলো করি বারবার…

কার্যক্রম – শান্তনু গুড়িয়া

যে প্রেম — খাচ্ছে চরকি পাক
যে ঈর্ষা — ফুলছে লুচির মতো
যে বিপ্লব — বলছে নিপাত যাক
যে জীবন — তুমুল অসংযত

যে ঘুড়ি — আকাশে উড়ছে
যে পাখি — দেখছে খাঁচায় বন্দী
যে হাত — হাতিয়ার তুলে ধরে
যে মাথা — মানুষ মারার ফন্দি

যে গরু — কাটছে বসে জাবর
যে নেড়ি — ঘুরছে পায়ে পায়ে
যে আমি — একদিনেরই রাজা
যে স্বপ্ন — গন্তব্য ওয়ান-ওয়ে

যে ভয় — বুকে বসছে চেপে
যে আলো — সবুজ কিংবা লাল
যে কলসি — দড়ি বেঁধে ডুবে মরে
যে মরণ — জিতে যাবে জানি কাল।

পরাজিত – শান্তনু গুড়িয়া

শেষ অশ্রুবিন্দুটি ঝরে পড়ার পর
আমি চুপ করে বসে থাকি ।
ঘুরে ঘুরে পাক খায় কান্না
বুকের ভেতর ।
দরজা-জানালা সব হাট করে খোলা
তবু এতটুকু বাতাস নেই যেন ।
কলম আঁকড়ে বসে থাকি চুপচাপ ।
যুদ্ধ থেমে গেছি অনেকক্ষণ
প্রতিপক্ষ গর্জাতে গর্জাতে ফিরে গেছে
বিজয়ীর শিরোপা ছিনিয়ে ।
ফাঁকা রণক্ষেত্রে ফাঁকা মস্তিষ্ক নিয়ে বসে থাকি
আর বসেই থাকি শুধু ।

অপেক্ষা – শান্তনু গুড়িয়া

এক শতাব্দী নীরবতা বুকে
যেন পদ্মফুলের বীজ
বেঁচে থাকা এক কঠিন তপস্যা
যেন অনন্ত অপেক্ষা — কখন পাবে
জল কাদা আর ঠিকঠাক টেম্পারেচার
সবকিছু মিলে গেলেই জার্মিনেশন শুরু
খোসার আড়াল ভেদ করে আসবে সুদিন
ধ্বনিত হবে নতুন জীবনের স্পন্দন।

পরজন্মে – শান্তনু গুড়িয়া

পরজন্মে আমি হবো সুবোধ সুশীল ছাগল
ঘাস খাবো আর বাঁধা থাকবো, ভাঙবো নাকো বেড়া
এজন্মে হলো না কিছুই, লোকে বললো ‘মেড়া’
তুমিও বোঝোনি যে — বললে ‘সেয়ানা পাগল’।
পারিনি তো দিতে সুন্দর বিছানা উপহার
কি আধুনিক স্নানঘর এবং বিবিধ উপচার
‘পেটুক পাষণ্ড’ বললেও তুমি — আমি নাচার
শুধুমুদু মান-অপমান গায়ে মাখবো না আর।
পরজন্মে বেড়াবো না বয়ে স্মৃতির গলগণ্ড
আমায় দেখে যদি বা তোমার রাগ হয় প্রচন্ড
ধড় অথবা মুণ্ডু ইচ্ছেমত নিও গো কেটে
মাংস হয়ে ঢুকে ব্যা ব্যা করবো তোমার পেটে।

ভালোবাসা – শান্তনু গুড়িয়া

ভালোবাসবে আদর দেবে স্পর্শকাতরতা
দেহের ভেতর উঠবে জেগে যৌনপ্রবণতা

তোমার দিকে বাড়িয়ে দেবো আদিম ইচ্ছে যত
ভালোবাসার মলম দিয়ে সারবে মনের ক্ষত

সম্মোহনে নষ্ট প্রহর উন্মাদনা মেশে
তৃষিত মন শান্তি পাবে তুমুল ভালোবেসে

প্রেমিক পুরুষ চায় যে শুধুই মুগ্ধতা দুই চোখে
বশ্যতাও চায় বুঝিবা পৌরুষেরই রোখে

শরীর থেকে কুড়োতে চায় তাপ আর বিদ্যুৎ
নিত্যনতুন উপচারে প্রণয় রাখে নিখুঁত

মুগ্ধ হয়ে করবে তুমি বকম বকম জানি
ভালোবাসবো আদর খাবো বন্ধু তোমায় মানি ।

জবানবন্দি – শান্তনু গুড়িয়া

ছদ্ম প্রেমিক নয়, বদ্ধ প্রেমিকের পাগলামিতে
সাঁকো নাড়াই দিনে রাতে ।
লজ্জাশরমের নেই বালাই
চেঁচিয়ে পাড়া করি মাথায়
করি তোমার কান ঝালাপালা
যতই তুমি সেজে থাকো বদ্ধ কালা !

প্রেমের ঘোরে ভূতে-পাওয়া ছায়াপথ ধরে
চাঁদকে নামাই মধ্যরাতে,
আঁকশি হাতে লাফাই, দাপাই খোলা ছাতে
আমার প্রেমের প্রদীপ ভাসাই গহীন রাতের অশ্রুজলে
এই যে আমার বন্দি জীবন তোমায় ঘিরে
অকৃত্রিম জবানবন্দি, পড়বে তুমি সময় হলে ?

প্রসন্ন হও দেবী – শান্তনু গুড়িয়া

আমি বিষের পাত্রে অমৃত খুঁজেছি
তুমি প্রসন্ন হও দেবী

হাসি-কান্নার ভেতরে চুনি পান্না খুঁজেছি
তুমি প্রসন্ন হও দেবী

করেছি কত আপোস, হয়েছি তোমার
পায়ের তলায় পাপোষ
চারিত্রিক ঋজুতা ছুঁড়ে ফেলে
তোমার পিছে পিছে করেছি ম্যাও ম্যাও
তুমি প্রসন্ন হয়েছো দেবী

ওই ভারী শরীরের নিচে শুয়েছি নির্বিকার
প্রত্যেক রোমকূপ দিয়ে শুষে নিয়েছি
ভালোবাসার অত্যাচার
ভূমিকম্পে কি ঘূর্ণিঝড়ে চৈত্র থেকে আষাঢ়ে
আমি নিজেকে এগিয়ে দিয়েছি বারে বারে
তুমি প্রসন্ন হলে কি দেবী

আমি মাঠে ঘাটে ঘাটে বাটে ভেসে ভেসে ফিরে এসেছি
তোমায় নিজের ভেবে ভালোবেসেছি
আশ্চর্য এক আনুগত্য উপহার তুলে ধরেছি
তুমি প্রসন্ন হও দেবী !

স্বপ্নে ও সম্ভবে – শান্তনু গুড়িয়া

অক্ষরে আনন্দ খুঁজি
ওটুকুই সম্বল অথবা পুঁজি
জীবনের শত গলিঘুঁজি —
ঠিকানা পাওয়া অসম্ভব ।

কালো কালো অক্ষরেও
এতো থাকে আলো ?
আনন্দের আয়োজন
চমকপ্রদ জমকালো !

স্মৃতিরা করে ভিড়
শুনি সময়ের পদধ্বনি,
জগতের ন্যাকাপনা দেখে
ট্যারা হয়ে গেছে মণি ।

বুকের ভিতর যন্ত্রণা
বড়ই প্রকাশকাতর
নির্বোধের বক্র হাসিতে
হৃদয় হয়েছে পাথর ।

মনের ক্ষুধা আছে
সশরীরে প্রত্যক্ষ করি,
স্বপ্নে ও সম্ভবে
আকুল জড়িয়ে ধরি !

থাকা বা না-থাকা – শান্তনু গুড়িয়া

গাড্ডায় পড়লে হাতি —
আড্ডায় দুর্গন্ধ ছড়ায় !

বন্ধুর ছদ্মবেশে কত হিতৈষী
সুযোগ বুঝে বেরিয়ে পড়ে
জিঘাংসার দাঁত নখ।

জীবন আসলে এক হত্যার প্রমিতি
রিপুর আঁচড়। কামড়।
রাত্রি ছন্নমতি।

আলো জ্বালাতে গিয়ে
নিভে যায় অনেকেই।
অমানুষদের জন্য যদি
পাওয়া যেত উপযুক্ত ভ্যাকসিন!

জীবন্মৃত হয়ে বেঁচে থাকা বা না-থাকা সমান।
রজনীগন্ধার মালা চেনে
রক্তমাংসের অন্তিম আখ্যান।

দার্শনিক – শান্তনু গুড়িয়া

কত অজস্র মুখ, মনের ভিতর ছায়া পড়ে

ভাবে-ভাষায়, আসে-যায়, হাসায়-কাঁদায় অনিঃশেষ
যেন শিশুর কলরোল…উল্লাস…বাঁধ ভাঙে
মুহূর্তেরা বন্দি হয় স্মৃতির পাতায়

কেউ কোত্থাও নেই, তবু কর্টেক্সের খাঁজে খাঁজে
ফেলে আসা সম্পর্কের হারানো সুর বাজে

নিজেকে মুছেছি আমি শূন্য করে মায়া
কার আবছায়া ভেসে ওঠে মনের আকাশে

অনন্ত আশ্রয় ওই নীলের ভিতর
জুবুথুবু বসে এক বৃদ্ধ দার্শনিক
দ্যাখে সব দু’চোখ ভরে অশ্রুসজল পাতা

রোমন্থনে রাত ঝরে যায়
আলো ফোটে কবিতার খাতায়…

পিপাসিত হে – শান্তনু গুড়িয়া

যে আনন্দ রোমহর্ষক, তাকে রোজ আহ্বান করি
যে খেলা বিপজ্জনক, তাকে জড়িয়ে ধরি
পাত্তাও দিই না গুরুজনের চোখরাঙানি বা
সাধুজনের সাবধান বাণী

গতির নেশায় মত্ততার পারদ ঊর্ধ্বমুখী
পিষে ফেলার জান্তব উল্লাস কিভাবে দেব রুখি !

ব্যথা জাগানোর অনুপম সুখে
চোখ বুজে আসে, কথা সরে না মুখে
চাপা নিশ্বাসের তোড়ে ভেসে যায় সব
বড় অকিঞ্চিৎকর লাগে এই বিত্ত-বৈভব

চিত্ত যখন পিপাসিত —
ভুলে যাই পাপ-পুণ্য, হিতাহিতও
জীবনের মানে কী বুঝিনি কখনও
বাতাস-কাঁপানো পাখার
বিরাম নেই কোনো ।

শান্তনু গুড়িয়া | Santanu Guria

New Bengali Novel 2022 | ফিরি বিশল্যকরণী (পর্ব ৬) | উপন্যাস

New Bengali Novel 2022 | ফিরি বিশল্যকরণী (পর্ব ১) | উপন্যাস

Loukik Debota Masan Thakur | লৌকিক দেবতা মাশান ঠাকুর | 2022

Bengali Story 2022 | নকুল পাগলা | প্রবোধ কুমার মৃধা

Kobita Lyrics Poetry In Bengali | Bangla kobita | Words of bangla kobita pdf | Words of bangla kobita for students | bangla kobita lyrics | bengali kobita for child | bengali poem in english | Bangla-English Poem Books | Bangla Poem for school Kids | Quotes by Jibanananda Das | Bangla kobita on Tumblr | Rahur Prem Bangla Kobita | Poem in Bengali | Shabdodweep Web Magazine | High Challenger | Shabdodweep Founder | Sabuj Basinda | Bengali Poetry | Bangla kobita | Bangla Kobita Caption Ideas 2024 | Poetry Collection | Book Fair 2024 | bengali poetry | bengali poetry books | Bangla Kobita Caption Ideas pdf | Bengali Poem Lines for Caption | bangla kobita | poetry collection books | poetry collections for beginners

poetry collection online | poetry collection in urdu | Bangla Kobita Caption Ideas Ebook | Best Bengali Poetry Folder pdf | Trending Bangla Kobita Caption Ideas | Bangla Kobita Caption Ideas – video | Shabdodweep Writer | bee poem | poem about self love | story poem | poetry angel | narrative poetry examples | poetry reading near me | prose poetry examples | elegy poem | poetry reading | poetry websites | protest poetry | prayer poem | emotional poetry | spoken word poetry | poem about god | poems about life | poems to read | English Literature | Bangla Kobita Caption Ideas examples | poems about life and love

famous quotes from literature and poetry | mothers day poems from daughter | poem about community | Bangla Kobita Caption Ideas Ranking | positive Best Bangla Kobita Collection | Bengali Poem Lines for Caption about life struggles | toni morrison poems | good bones poem | google poem | funny poems for adults | inspirational poems about life | friendship poem in english | paul laurence dunbar poems | freedom poem | sad poetry about life | freedom poem | sad poetry about life | Natun Bangla Kabita 2023 | Kobita Bangla Lyrics 2023 book | New Bangla Kobita Caption Ideas | Writer – Bangla Kobita Caption Ideas

Archive – Bangla Kobita Caption Ideas | Bangla Full Kobita | Online Full Kobita Bangla 2023 | Full Bangla Kobita PDF | New Bangla Kabita Collection | Shabdodweep Online Poetry Story | Poetry Video Collection | Audio Poetry Collection | Bangla Kobitar Collection in mp3 | Bangla Kobitar collection in pdf | Indian Bengali poetry store | Bangla Kobita Archive | All best bengali poetry | Indian Bangla Kobita Caption Ideas | Best Poems of Modern Bengali Poets | Best Collection of Bengali Poetry in pdf | Bengali Poetry Libray in pdf | Autograph of Bengali Poetry | India’s Best Bengali Writer | Shabdodweep Full Bengali Poetry Book | Bengali Poetry Book in Google Bookstore | Google Bengali Poetry Book | Shabdodweep World Web Magazine

Shabdodweep International Magazine | Top Poems of Modern Bengali Poets | Bangla Kobita in Live | Live Bangla Kobita Caption Ideas | Bengali Poetry Recitation Studio | Sabuj Basinda Studio for Bengali Poetry | Bangla Kobita Sankalan 2023 | Shabdodweep Kabita Sankalan | New Bengali Poetry Memory | History of Bengali Poetry | History of Bangla Kobita | Documentary film of Bengali Poetry | Youtube Poetry Video | Best Bangla Kobitar Live Video | Live Video Shabdodweep | Bengali to English Poetry | English to Bengali Poetry | Bengali Literature | Full Bengali Life of Poetry | Bangla Kobita Ghar | Online Bangla Kobita Caption Ideas | New Bengali Poetry House | Full Bengali Poetry Collections PDF | Library of Bangla Kobita | Bengali Poetry and Story

Leave a Comment

Seraphinite AcceleratorOptimized by Seraphinite Accelerator
Turns on site high speed to be attractive for people and search engines.