...

Web Story in Bengali | Best 2023

Sharing Is Caring:

[Web Story in Bengali]

বাঘমারির জঙ্গলে – শিবপ্রসাদ পুরকায়স্থ [কিশোর গল্প]

প্রশান্তকে সকাল থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এমন কি বড়ো হয়েছে। এ বছর বড়ো ইসকুলে গেছে এইযা। তাকে কি এমন বড়টা ভাবা যায়। সেই ছেলে কোথায় আর যেতে পারে। অনেকের মুখে অনেক কথা শুনছে। সেটাই তো ভয়ের, যে জেদি ছেলে। বেলা প্রায় ডুবতে বসেছে। আবার যে কখন ফিরবে, কে জানে। তবে যেখানে থাকুক না, সন্ধ্যার আগেই ফিরবে তো! মায়ের মন কোনোভাবে প্রবোধ মানছে না।

প্রশান্তর কাকা খবরটা এনেছিল,গতরাতে পঞ্চমের হাট থেকে ফিরে। বাঘমারির জঙ্গলে বাঘ ঢুকেছে। তবে কয়েকদিন আগের ঘটনা। দমকলের ওদিকটায় সকলে ভয়ে ভয়ে রাত কাটাচ্ছে। রাতে পটকা ফাটাচ্ছে। আগুন জ্বালিয়ে ভয় দেখাচ্ছে বাঘ মামা’কে। এতো করেও নিশ্চিতে কেউ নেই। কখন কার ঘাড়ে হালুম করে পড়বে কে জানে। লোকালয় তো বাঘের নাগালের মধ্যে এখন। সুন্দরবনের বাঘ বলে কথা। পেটে খাদ্যের টান পড়লে দেখছি আজকাল প্রায় নদী ঝাঁপিয় এপারে আসে। এসেছেও এর আগে, না এলে বাঘমারি নাম হলো কি করে। যেমন বাগদিমারি। সুতি নদীতে কুমির ঢুকে এক জেলেবাগদিকে টেনে নে’যায়। এইভাবে ওখানকার নাম বাগদিমারি। এখন সেই নদী মজে গেছে। সেখানে এখন শ্মশান গড়ে উঠেছে। তেমন সুন্দরবনের লোকালয় ঘেঁষা ছোট্ট দ্বীপের নাম বাঘমারির জঙ্গল।

প্রশান্তর মনে ধরেছে কাকুর যে কথাটা। আগামীকাল বাঘমারি ঘেরাও করবে। যেভাবে হোক বাঘের বন থেকে তাড়াতেই হবে। গুলি করে মারার অনুমতি নেই। আইন বিরুদ্ধ কাজ। পশু সংরক্ষণ আইন খুব কড়া। দলবেঁধে বনের মধ্যে ঢোকার অনুমতি পাওয়া যায়না। তবুও বনের মধ্যে ঢুকবে। প্রশাসনকে উপেক্ষা করে। শেষ পর্যন্ত কী হয় ওখানে গেলেই বোঝ যাবে। যেভাবে হোক প্রশান্ত ওখানে পৌছবে। আগু-পিছু না ভেবেচিন্তে বেরিয়ে গেছে। বোঝা যাচ্ছে না কাউকে সঙ্গে নিয়েছে কি না।

শীতের সকল। মাঠে বর্ষার ধান কাটা হয়ে গেছে। বড়ো বড়ো নাড়া মাঠময় খাড়া হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। বেশিরভাগ বাদায় খেঁসারি কড়াই বোনা। নাড়ার গা’ধরে দাঁড়িয়ে, ফলফলে কড়াই গাছ যেন উঁকি দিয়ে আকাশ দেখছে। ফলে ফুলে ভরে আছে। কড়াই গাছ মাড়িয়ে হেঁটে চলেছে। দু’চারে কড়াই শুঁটি সমেত গাছ তুলতে ভুলবে কেন। কাঁচা কড়াই খেতে খেতে মজা করে যাওয়া। একেবারে ফাঁকা মাঠ নয়। পানের বরজ। সিমের মাচা। ঢ্যাঁড়সের বাগান।লঙ্কার বাগান। কোথায় ঘিরে রাখা নেই। ঘন গাছপালা দেখলে ভয় করে। ওখানে বাঘ গা’ঢাকা দিয়ে ওঁৎ পেতে বসে নেই তো? থাকতেও পারে। আবার নদীর ধারধরে যাওয়া মোটেই নিরাপদ নয়। গেঁওয়া বানির ঘনবন। ভয় তো হবেই। যতটা সাবধানে থাকা যায়। ভয় আছে জেনে বাড়ি থেকে বেরিয়েছে। যদি প্রাণের ভয়কে প্রাধান্য দিতে হয়, এখন থেকে বাড়িতে ফিরতে হয়। সে তো জঙ্গলে ঢুকবে ঠিক করেই এসেছে। ভয়কে জয় করে এগিয়ে যেতেই হবে দৃঢ় সংকল্প। বাড়ির কাউকে বলে বের হয়নি। ফিরে গিয়ে জানাবে।

প্রশান্ত লোকালয় ছাড়িয়ে গেছে। নদীর বাঁধ অনেকটা সামনেই। একটা দোচালা কুঁজি ঘরের সামনে এসে দাঁড়াল। মাছের ঘেরি মোনার জন্য এই দোচালা কুঁজি। একটি লোক বসে জাল বুনছে। লোকটির থেকে জানতে পারল, এই ঘেরির নরম কাদায় বাঘের থাবার দাগ এখানো আছে। দেখল হুবহু বিড়ালের পায়ের ছাপ যেন। আকারে বড়ো এই যা। এই জন্য তো বাঘকে বিড়ালের মাসি বলে। বাঘের পায়ের ছাপ দেখে ভয় হলো। কৌতূহল আরও বেড়ে গেলো। দ্রুত পা চালিয়ে লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে চলল।গন্তব্যে পৌঁছে দেখল মেলা বসেছে নদীর এপারে। তখন একটার মতো বাজে। নদীতে ভাটা। জল তলায় নেমে গেছে। তবুও নদী পেরুতে নৌকা লাগবে। প্রশান্ত না দাঁড়িয়ে একহাঁটু গদের মধ্যে নেমে পড়ল। তার বয়সি অনেক ছেলে রয়েছে। তাদের কেউ যাওয়ায় নিষেধ করেনি। তবে তার বাধা কোথাও নেই।

প্রশান্ত মোটামুটি ভৌগলিক চিত্র বুঝে গেছে। উত্তরে মৈইপীঠ। দক্ষিণে দমকল। যেখানে দাঁড়িয়ে বাঘের গর্জন এপার থেকে শোনা যায়। এই দমকলে মেজ পিসির বাড়িতে বাবা মায়ের সঙ্গে কয়েকবার এসেছে। এখন নদী পেরিয়ে বাঘমারিতে উঠতে চলেছে। যেখানে স্থানীয় মানুষজনেরা জীবিকার সন্ধানে আসতো। মাছ, কাঁকড়া, ডাগরোল মাছ ধরতে। জ্বালানি কাঠ কাটতে। আর কিছু বিলাসী মানুষ পাখি শিকার করতে সপ্তাহে একদিন তো আসবেই। ছিটে বন্দুক নিয়ে। সেই নিরাপদ বনে হিংস্র বাঘের অনুপ্রবেশ। তাকে চরম শিক্ষা দিতে সশস্ত্র অভিযান। সশস্ত্র বলতে লাঠিসোটা ছাড়া তেমন চোখে পড়ার নেই। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে গোপনে আগ্নেয়াস্ত্র থাকলেও থাকতে পারে প্রশান্ত চোখে পড়েননি।

বাঘের ভয়ে জনজীবন সন্ত্রস্ত। পঞ্চায়েত উপরমহলে জানিয়েছে। তারাও উপরমহলে জরুরি বার্তা পাঠিয়ে দিয়েছে। নদী নিকটবর্তী বসবাসকারীর জীবনের ততটা মূল্যবান নয়।তাই সংকট বার্তা ধীর লয়ে এখন ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। যারা লিখিত বয়ান বন-দপ্তরে পৌঁছে দিতে গিয়েছিল, একটি কথা শুনে এসেছে। যতই ক্ষতি করুক বাঘ মারার চেষ্টা করবেন না। অনেকটা এইরকম শুনিয়ে দিলো- দু’চারটে মানুষের চেয়ে বাঘের মূল্য অনেক। এমন কিছু করতে চেষ্টা করবেন না আইনের রোষে পড়তে পারেন। আমরা দেখছি দ্রুত কতদূর কি করতে পারি। এক সপ্তাহের অধিক সময় পেরিয়ে গেছে। আশ্বাসের বাণীর শীতল স্পর্শে এখনো বৃষ্টি হয়ে ঝরে পড়েনি। প্রশাসন হাত গুটিয়ে বসে নেই। হয়তো বিষয়টা গুরুত্ব সহকারে বোঝার মতো এখনো সময় হয়নি। তেমন করে ভাবতেন, বন-দপ্তরের কর্মকর্তাদের দেখা মিলছে না কেন।

মাঠ ভেঙে আসার পথে প্রশান্ত একটা ব্যাপারে লক্ষ্য এড়ায়নি। যতই তুলনামূলক ভাবে ছোট হোক। যাদের ঘাড়ে বাঘের থাবা প্রথম পড়বে। তাদের কোনপ্রকার যেন হেলদোল নেই। স্থানীয় বসবাসকারীদের দেখে স্বাভাবিক আচরণ মনে হয়না। কেমন নিশ্চিন্তে বাগানবড়ির কাজকর্ম করছে। দোকানে বসে পা’ঝুলিয়ে খোশমেজাজে গল্পগুজব করতে দেখা গেছে। তারা ছোটরা মরণপণ করে বাঘের বনে ঢুকতে চলেছে। স্থানীয় লোকেদের তো তেমন উৎসাহ দেওয়ার দায়টুকু নেই মনে হচ্ছে। কাদের জন্যে জীবন বাজি রেখে এসেছে কী জানি বাবা। এদের দেখে প্রচলিত প্রবাদের কথা মনে পড়-‘কাজ সেরে বসি, সত্তুর মেরে হাসি’। যেন তেমন কিছু করে নিশ্চিত হয়ে সবাই বসে আছে। প্রশান্তর এতো জটিলতা বোঝার বয়স হয়নি।

নদী পেরিয়ে অভিশপ্ত চড়ায় এখন প্রশান্ত। একগাছি বন্দুক নিয়ে যে মানুষটা প্রথম সারিতে অজিত ডাক্তারের ছোট ভাই। প্রশান্তের গ্রামের লোক। ইসকুলে যাওয়ার পথে প্রায় দেখা হয়। বিপদের মধ্যে কেউ কারো চেনা থাকেনা প্রশান্ত বুঝে গেছে। কিছুইতে বুঝতে পারছে না আগু-পিছু করে কতজন বাঘের সঙ্গে লড়তে এসেছে। সামনে থেকে কী সংকেত আসছে। পেছন থেকে কী সংবাদ পৌঁছচ্ছে। কিছুই অনুমান করতে পারছে না। সবাই যে কী শুনতে কী শুনে তালগোল পাকাচ্ছে কে জানে বাবা। ছোট বলে সবাই এড়িয়ে যাচ্ছে স্পষ্ট কেউ কিছু বলছে না।

সুন্দরবন বলতে অনেকটা জায়গা নিয়ে গড়ে ওঠা বিশাল অখণ্ড বনভূমি নয়। বহু বনের সমাহার। বনের কথা বললে দ্বীপের কথা উঠবেই। মূল দ্বীপ ছাড়া অসংখ্য। অসংখ্য দ্বীপ যেমন গড়ে উঠেছে আবার জলের তলায় তলিয়ে গিয়েছে,গাছগাছালি সমেত প্রাণীকুল নিয়ে। তেমন এক ছোট গড়ে ওঠা দ্বীপ এইটি। যেখানে প্রশান্তর বয়সি দাঁড়িয়ে আছে অনেকে। এই যে দ্বীপ। যেখানে বাঘ থাকার কথা নয়। বরং জীবীকার সন্ধানে আসা মানুষের অভয়ারণ্য এতদিন ছিল, এখন তা নেই। চোখ কান খোলা রাখলেই বোঝা যায়।

Bangla Caption Kobita

লোকালয় সংলগ্ন বন থেকে বাঘ তাড়ানোর সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি। সবটাই দুর্বল চেষ্টা চলছে বলা যায়। বিশেষ করে রাতেই তো ভয়ের ব্যাপার। সারারাত মাঝে মাঝে পটকা ফাটিয়ে। আগুন জ্বালিয়ে। মুখ দিয়ে বিকট আওয়াজ করে বাঘ ঠেকিয়ে রাখার চেষ্টা চলেছে বেশ কয়েকদিন ধরে। এইযে দিনের আলো থাকতে থাকতে বনের মধ্যে তেড়েফুঁড়ে যাওয়া এ-ও একপ্রকার বাঘের ঠেকিয়ে রাখা বলা যায় । যাতে বাঘ ভয় পেয়ে নদী সাঁতরে গভীর সুন্দরবনে আবার যাতে ফিরে যায়। কাজ যে একেবারেই হয় না তা বলব না। প্রশান্তরা এসব বুঝতেই পারছেনা বাঘ কোথায় কী অবস্থায় আছে। তাদের আশপাশে ঘাপটি মেরে বসে নেই তো! সুযোগের অপেক্ষায়। ভাবলে গায়ের লোম খাড়া হয় ওঠে। এতো ঘরের পোষা বেড়াল নয়। কিছু ছুঁড়ে দিলে খুশী হবে। অথবা খিদে পেলে খাওয়া জন্য পায়ে পায়ে জড়াবে। মিউ মিউ করে বিরক্ত করবে। বাঘ জানে কী করে ঘাড় মটকে খাদ্য সংগ্রহ করতে হয়। এমন অলক্ষুণে কথা প্রশান্তর মনে যতই না ওঠে ততই ভালো।

মুহূর্তের জন্য প্রশান্ত ভাবনার মধ্যে ডুবে ছিলো। সবাই তখন ঠেলাঠেলি করে বন থেকে বেরিয়ে যেতে চাইছে। প্রশান্ত না চাইলেও মুখ ফেরাতে বাধ্য হলো। বন ছাড়ার আগে প্রকৃত সত্য তার জানা হয়ে গেছে। সামনে সবাই যেখানে থমকে গেছিল। ঠিক সেখানেই বিকৃত অবস্থায় বাঘটি পড়ে ছিলো। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কেটে নেওয়া হয়েছে। তুকতাকের কাজে লাগবে বলে। বনে ঢোকার আগে দেখে এসেছিল, বিশাল শরীরের মহিষ। একটি লাঠির গায়ে বাঁধা। বাঘের শিকার হওয়া ক্ষতবিক্ষত মৃত মহিষ। খুব চাপাভাবে মুখে মুখে ফিরছে, ওই মৃত মহিষের শরীরে বিষ ঢেলে দেওেয়া হয়েছিল। বাঘটি বিষাক্ত মাংস খেয়েই মারা গেছে। এই বনে তার অন্য সঙ্গী হয়তো সেও আরও গভীর মরে পড়ে থাকতে পারে। তবে এসব কথা ধারণা মাত্র।

সুন্দরবনের বাঘ যেমন শক্তিশালী। আর নোনা পাতায় চরতে আসা মহিষ শারীরিক ক্ষমতায় কম যায়না। সেই মর্মান্তিক দিনের সূর্যাস্তের আগে বাঘ- মহিষের সে কী লড়াই। নদীর ওপর থেকে শুনেছে মহিষের ভয়ংকর আর্তনাদ। বাঘের গর্জন। বড়ই মর্মস্পর্শী যা ভোলার নয়, শরীরে কাঁপন ধরায়।সবার ধারণা একটা বাঘের পক্ষে সম্ভব নয়। বেকায়দায় পড়ে মহিষটি জীবন দিয়ে থাকতে পারে। সবার মনে সন্দেহ দানা বেঁধেছে। সেদিনের পর থেকে আর এপারের মহিষ ওপারে পাঠতে কারুর সাহস হয়নি। তাছাড়া মহিষের চোখে মুখে আতঙ্কের ছাপ স্পষ্ট দেখেছে।

বনের মধ্যে যারা ঢুকেছিল, অনেকের বন্যপ্রাণীর সম্পর্কে বাস্তব ধারণা আছে। বাঘেরা দিনের কোন সময় থেকে শিকারের জন্য প্রস্তুত হয় তাদের জানা আছে। সূর্য পশ্চিমে অনেকটা গড়িয়েছে। এদিকে জুয়ারের জল নদীর জেগে থাকা ঢালু চর ক্রমশ ঢেকে ফেলছে। জল যতই বনের ধার ঘেঁষবে, খোলা জায়গা কমতে থাকবে। তখন জলে কুমির ডাঙায় বাঘের নাগালে পড়ার ভয় প্রকট হয়ে উঠবে। এককথায় উভয় সংকট। প্রাণ নিয়ে ফেরা মুশকিল। যা কানে কানে ভেসে আসছে মৃত সঙ্গী যে বেঁচে নেই কে বলতে পারে? যতই তাড়াতাড়ি বন ছাড়া যায় এখন তার লড়াই শুরু হয়ে গেছে। নৌকায় ওঠার জন্য প্রশান্ত ব্যস্ত হয়ে পড়ল।

শিবপ্রসাদ পুরকায়স্থ | Shibaprasad Purakayastha

Is Three Mile Island Still Dangerous? | Best Article 2023

Famous Places in Murshidabad | Best Travel Story 2023

Best Bangla Golpo Reading 2023 | তৃতীয় পক্ষ | Nasir Waden

Top New Story in Bangla 2023 | আষাঢ়ের অলি মনোরমা | Tanmoy Kabiraj

Web Story in Bengali 2023 | Top Bangla Golpo Online Reading | New Read Online Bengali Story | Top Best Story Blogs | Best Story Blogs in pdf | Sabuj Basinda | High Challenger | Famous Bangla Golpo Online Reading | Shabdodweep Read Online Bengali Story | Shabdodweep Writer | Web Story in Bengali pdf | World’s Famous Bangla Golpo Online Reading | Pdf Web Story in Bengali | Natun Web Story in Bengali | Full Web Story in Bengali | Bangla Golpo Online Reading Blogs | Best Story Blogs in Bengali | Live Bengali Story in English | Web Story in Bengali Ebook | Full Bangla Galpo online | New Live Bengali Story | New Bengali Web Story – Episode | Golpo Dot Com Series | Horror Web Story in Bengali Video | Horror Live Web Story in Bengali | New Bengali Web Story Audio | New Web Story in Bengali Video | Bangla Golpo Online Reading Netflix | Audio Bangla Golpo Online Reading | Video Web Story in Bengali | Shabdodweep Competition | Story Writing Competition | Bengali Writer | Bengali Writer 2023 | Trending Web Story in Bengali | Recent Bangla Golpo Online Reading | Top Live Bengali Story | Popular New Bengali Web Story | Best Read Online Bengali Story | Read Online Bengali Story 2023 | Shabdodweep Bangla Golpo Online Reading | New Bengali Famous Story | Web Story in Bengali in pdf | Web Story in Bengali Download | Web Story in Bengali mp3 | Horror Adult Story | Read Online Bengali Story Collection | Web Story in Bengali mp4 | Bangla Golpo Online Reading Library | New Bengali Web Story Download | Full Live Bengali Story | Bengali Famous Story 2023 | Shabdodweep Bengali Famous Story | New Bengali Famous Story | Bengali Famous Story in pdf | Live Bengali Story – audio | Web Story in Bengali – video | Bengali Famous Story mp3 | Full Bengali Famous Story | Bengali Literature | Shabdodweep Magazine | Shabdodweep Web Magazine | Live Bengali Story Writer | Shabdodweep Writer | Collection Bangla Golpo Online Reading

Leave a Comment

Seraphinite AcceleratorOptimized by Seraphinite Accelerator
Turns on site high speed to be attractive for people and search engines.