...

New Modern Bengali Poetry | Best Bangla Kabita

Sharing Is Caring:

মেলা দেখা – মোহিত ব্যাপারী

মেলায় দেখ দোকান সারি সারি।
লোকে লোকারণ্য,
তিল ধারণের ঠাঁই নেই।
মেলা আছে ঠেলাঠেলি হুল্লোড়ে।
খাওয়া চাই চাউমিন মোগলাই এগরোল।
জিলিপির প্যাচে মন পড়ে আছে।
চেয়ে আছে মণ্ডা মিঠাই নিমকি গজা।
ফুচকাগুলো রাগে ফুলে আছে।
আলু আর টক জলে মান ভাঙাবে তার।
মুখে দিয়ে চাপ দিলে মন ভরে যাবে।
বনবন ঘুরছে নাগরদোলা।
পাশাপাশি বসে হাত ধরে প্রেমিক যুগল।
কুঝিকঝিক ছোটদের রেলগাড়ি
ছোট্ট সোনা চলেছে মামার বাড়ি।
রংবেরঙের বেলুন হাতে ফেরিওয়ালা ঘোরে।
জল বেলুন কাঠি বেলুন গ্যাস বেলুন ওড়ে।
তেলে ভাজার গন্ধে জিভে জল এসে পড়ে।
পাঁপড় হাতে সবাই পায়চারি করে।
দোকানিরা বসে আছে খদ্দের চেয়ে।
থরেথরে সাজানো খেলনার সারি।
খোকাখুকির বায়নায় রোল ওঠে কান্নার।
আসবাব থেকে রান্নার
সাজগোজ আর ঘরকন্যার
সবই মেলে মেলাতে।
দোকানের তাকে সাজানো কাঁচের চুড়ি।
লাল নীল সবুজ চুড়ি।
তোমার হাতে চুড়ি বেলোয়ারী।
আমার হৃদয়ে বৈশাখী ঝড়।
তোমার হাতে চুড়ির টুংটাং
আমার হৃদয়ে সপ্ত সুরের রেওয়াজ।

নেতা হওয়া – মোহিত ব্যাপারী

মানুষ সবাই নেতা হতে চায়।
নেতা হওয়া সহজ কথা নয়।
দশজনাতে ঘুরলে পিছেই লোভে,
তাদের কেমন যেন নেতা নেতা ভাব।
চরিত্রটাই পাল্টে যায় মনোভাবের সাথে।
একটুখানি তোষামোদ পেলে মাঝেসাঝে
যেন ধরাটাকে সরা ভেবে নেয়।
ক্ষমতার ছিটে ফোঁটারও নাগাল পেলে
যারা কেবল নিজের আখের গোছায়,
তারা কি কভু নেতা হয়!
নেতা হওয়া মোটেই সহজ কথা নয়।
অনেক আত্মত্যাগের জীবন পেরিয়ে,
আত্মত্যাগের পথে নেতৃত্ব হেঁটে যায়।
অসহায় দুর্বল মানুষের পাশে পাশে
নেতা আর নেতৃত্ব তাদের পথ দেখায়।
নেতা এক দায়িত্ববোধের নাম।

বিচিত্র চরিত্র – মোহিত ব্যাপারী

সময়ের সাথে সাথে স্বার্থের রূপ বদলায়।
পুরনো স্বার্থ শেষ হয় নূতনের সন্ধানে।
সময়ের সাথে সাথে মানুষও বদলে যায়।
আজ যে ভালো কাল সে মন্দ তাই।
সুবিধের মসনদে বসে তোমার স্তুতি গান।
সুবিধে ফুরালে তোমারই দুর্নাম কন্ঠে তার।
শত্রু শিবিরে তোমার ধ্বংসের নকশা তৈরি হয়।
স্বার্থের সংঘাতে আত্মীয় হয় পর।
শত্রুও কাছে আসে সুবিধে যদি পায়।
আজকে যে খুব প্রিয়জন বন্ধু তোমার,
বিরুদ্ধে বললে কথা সে ই শত্রু তখন।
শত্রু তোমার আর অন্যের দালাল।
তুমি কি নিজের দিকে তাকিয়ে দেখেছ কখনো?
তুমিও তো আসলে এক চরিত্রহীন।
যখন কেবল তোমার মতে মত দিয়েছে,
তখন কেবল বন্ধু তোমার প্রাণের সখা।
তোমার ভুল ধরলেই শত্রু তোমার।
এ কেমনতর চরিত্রধারা ?
এ জগতে সবাই সবার সুবিধে নেয়।
সিঁড়ি ভাঙা অঙ্কের ধাপে ধাপে উপরে উঠতে চায়।
সুবিধে ফুরলেই সবাই সবার শত্রু হয়।
দল বদলের ভিড়ে সবাই কোথায় যেন হারিয়ে যায়।

সংকল্প – মোহিত ব্যাপারী

মন যদি ভেঙে যায়,
সামলে রেখো শক্ত হাতে।
মন যদি কষ্ট পায়,
বুঝিও তাকে সহজ হতে।
মন যদি মন্ত্র চায়,
তাকিয়ে দেখো সুমুখপানে।
মনকে খানিক জায়গা দিও মনের কোণে।
বিফলতার শোকমিছিলে হারিয়ে গিয়ে
পালিয়ে যেও না হেরে গিয়ে।
পরাজিত সৈনিককে কে আর কবে রেখেছে মনে।
কেউ মনে রাখবে না কোনদিন।
এটাই যে নিয়ম জগতের।
বিজয়ের পতাকা ওড়াই পরাজিতের শবদেহে।
জানি হয়তো বা স্মৃতিরা ভিড় করে থাকে।
প্রতি মুহূর্তে স্মৃতির দংশনে ক্ষত বিক্ষত হয় অন্তর।
তবুও মনকে বুঝিও সহজ হতে।
মনটা তো ছোট্ট কোন কুঠুরি নয়।
মনের গভীরেও আছে লক্ষ কোটি কৃষ্ণ গহ্বর।
আর উপরে ভেসে আছে নিকট বর্তমান।
বর্তমানও অতীত হবে একদিন।
শুধু অপেক্ষার দিনগুলি বাকি।
হয়তো মুহূর্তরা মুছে যাবেনা কোনদিন।
তবুও কোন একটি কৃষ্ণ গহ্বরে লুকিয়ে রেখো তাকে।
তোমাকে যে বাঁচতে হবে বাঁচার মত করে।
বাঁচতে গেলে হোঁচট খাবে যত্রতত্র।
তবুও আবার উঠে দাঁড়াতে হবে।
এবার তুমি উঠে দাঁড়াতে শেখ।

দুর্নীতির খেলা – মোহিত ব্যাপারী

রাজনীতি নীতিহীন দুর্নীতিরই খেলা।
নীতিহীনতাই রাজার নীতি পাশা পাল্টাবার খেলা।
যুগ যুগান্ত ধরে চলমান প্রচলিত রীতি এই।
ভালোবাসা আর যুদ্ধে সবই বৈধ, দুর্নীতিও।
ক্ষমতার লোভে ক্ষমতার পাপে ক্ষমতায় টিকে থাকা।
হোক না সে জোর করে কিংবা সুকৌশলে।
ক্ষমতাই আসল রাজা জনগণ শুধু দর্শক সেথা।
রাজনীতির মঞ্চে রাজনীতি চেঁচিয়ে চেঁচিয়ে জনগণের কথা বলে।
ক্ষমতা হাতে পেলে তারা কেবল নিজেরই কথা ভাবে।
জনগণের ভালো করতে নিজেরই আখের গোছায়।
আর মাঝে পড়ে দুইয়েরই সর্বনাশ ঘটায়।
নিজেরাও ডুবে যায় পাপের পঙ্কিলতার চোরাবালিতে।
একটি পাপ ঢাকতে আরেকটি পাপের অশুভ উদ্বোধন।
পাপের পরে পাপের পাহাড় জমতে থাকে ধীরে ধীরে।
সেই পাহাড়ের চূড়া থেকে নেতা হয়ে জনগণকে দেখা।
ক্ষমতাই আসল রাজা, জনগণ শুধু দর্শক সেথা।
ক্ষমতায় থাকতে দুর্নীতি কৌশলের আশ্রয় নেওয়া।
ক্ষমতায় থাকতে হলে নির্বিচারে মার বিরুদ্ধতাকে।
ক্ষমতায় থাকতে ষড়যন্ত্র চাই আপনজনেরই বিরুদ্ধে,
ভাই ভগিনী মাতা পিতা হলেও।
নইলে একদিন তুমিই ষড়যন্ত্রের শিকার হবে।
সুযোগ পেলেই তোমার বুকেই গাঁথবে ছোরা এক লহমায়।
সুযোগ নাও সুযোগ বুঝে নিজের ক্ষমতা অন্যের দুর্বলতায়।
সুযোগ নিতে নিজেকে নামিয়ে আন পঙ্কিলতার গভীরে।

অভিলাষ – মোহিত ব্যাপারী

আকাশ কি যে ভালো।
সেথায় আছে রং বেরঙের আলো।
প্রভাত অর্ক একলা হাসে
সকল দেশে ভেসে।
নব আলোর কিরণ ধারায় সিক্ত,
কর্মব্যস্ততায় গা ভাসায় ক্ষিতি।
মধ্যগগনে ক্রুদ্ধ অংশুমালী জ্বলে।
ক্লান্ত আতপ ঢলে পড়ে পশ্চিমে
যেখানে দিগন্ত পৃথিবীতে মেশে।
আকাশের মন খারাপের কালে
কজ্জল মান্দাস চেপে একলা কাঁদে।
অবনী ভাসে আঁখির নীরে।
রামধনু রং ছড়ায় মেঘের গায়।
কখনো আঁধার কখনো আলো।
লক্ষ হাজার মানিক জ্বলে,
তিমিরের সাথে খেলা করে।
অমৃতাংশুকে ভালোবেসে
অভিসারের গল্প করে।

স্মারক – মোহিত ব্যাপারী

তোমার চোখে আকাশ দেখেছি আমি।
ঘুরেছি বিশ্বময়।
পেয়েছি তোমার মহানুভবতার পরিচয়।
তোমার মুক্ত আকাশ আজও আমায়
হাতছানি দেয়।
তোমার মনের গভীরে ডুব দিয়েছি,
গুপ্তধন এক অমৃতের সন্ধানে।
আমি তো সন্তরণ পটু নই।
কেবলই এলোপাথাড়ি হাত পা ছুড়েছি।
ঝড়ে পড়া ঈগলের ডানার ঝাপটায়,
তুমিই কেবল হয়েছ ক্ষতবিক্ষত।
নদীর ক্ষীণ ধারা সাগরে মিশে হারিয়ে গেছে।
তোমার যন্ত্রণার হয়নিকো অবসান।
কেবলই বাড়িয়ে দিয়েছি।
তোমার বিশাল ধনরত্নের ভাণ্ডার,
তোমার অমৃতের পুষ্করিণী নিঃস্ব করে,
নিজেকে উজাড় করে দিয়েছ আমায়।
ইচ্ছে ছিল দু’হাত ভোরে কুড়িয়ে নেবো,
মনের সিন্দুকে রাখব তুলে পরম যত্ন ভরে।
ইচ্ছে ছিল আকণ্ঠ পান করে অমৃত,
তোমার অমরত্বের সঙ্গী হব।
হীরের খনিতে আমি শুধু কয়লা কুড়িয়েছি।
এলোপাথাড়ি হাত পা ছুঁড়তে ছুঁড়তে,
সমস্ত শরীর অবশ হয়ে এসেছে একদিন।
নিষ্প্রাণ দেহটা পড়ে আছে তলদেশে।
কয়লার চাপে হয়তো বা কোনোদিন
জীবাশ্ম হবে বলে।
হয়তো বা আর কোনোদিন তোমার আকাশে
ডানা মেলে উড়বে না পাখি।
অনেক না পাওয়ারাই হয়তো রয়ে যাবে
অশ্রুর বেদনাতে।
জীবাশ্মের প্রতিটি রেখায় তবু রয়ে যাবে
তোমারই প্রেমের স্মারক।

মেঘের অভিসার – মোহিত ব্যাপারী

আকাশ আলো সূর্য সকাল।
বৃষ্টি বাদল আকাশ পাতাল,
মেঘের সীমানায়।
ময়ূর নাচে পেখম তুলে আনন্দ উল্লাসে।
সৃষ্টিছাড়া বৃষ্টি আজি আনন্দেতে মাতে।
মেঘ প্রেয়সী ডাক দিলে সে
থাকতে নাহি পারে।
আকাশ আজি পাগল হল
মেঘ প্রেয়সীর ডাকে।
আকাশ আজি ধন্য হল
মেঘের আলিঙ্গনে।
মেঘ যে আজি মত্ত হল
আকাশেরই সাথে।
তাদের মিলন হবে বলে।
আনন্দ উল্লাসে
মাতাল হল সবে।
অভিসারের খেলা ঝলমলিয়ে ওঠে
মেঘের গরজনে।
আনন্দেরই অশ্রু যে তাই
বৃষ্টি হয়ে নামে।

শিয়রে নির্বাচন – মোহিত ব্যাপারী

নীতিহীন রাজনীতি আর দলাদলি।
উত্তাপ ছড়ায় চায়ের দোকান থেকে ময়দান।
শিয়রে নির্বাচন তাই এত আয়োজন।
চারিদিকে মহাসমারোহ উৎসব কলরব।
রাজনীতির জননেতা যত হারিয়েছে জনগণ সবে।
সবে মিলে কারসাজি কারবারি হয়েছে রাজ ব্যবসায়ী।
নীতিটাকে দূরে রেখে পাকিয়েছে হাত দুর্নীতিতে।
যত পাবো লুটে খাবো রাজনীতি জিন্দাবাদ।
আমি বড় নেতা, তুই জনগণ নচ্ছার।
আমায় কেন প্রশ্ন করিস হারামজাদা বজ্জাত ?
ফের যদি প্রশ্ন করিস, সোজা ভরে দেব জেলে।
আমার পা’চাটা পারিষদ যত বুদ্ধিমান প্রখর।
বুদ্ধির দোহাই পেড়ে কোনমতে পদ একখানা পেলে,
করজোড়ে লেজ নাড়ে, কেবলই আমায় ভজে।
হারামজাদা নচ্ছার জনগণ যত,
সারাক্ষণ কেন ঘেউ ঘেউ করিস পিছে পিছে ?
আমারই খাস, আমারই দুর্নাম রটাস।
কোন কিছুতেই মন ভরে না তোদের।
বলতে পারিস আর কত চাই তোদের ?
সবাই আসলে নামেই জননেতা।
জনগণকে পরিয়ে টুপি দল বদলায় ইচ্ছেমত।
নির্বাচনের উত্তাপেতে মুখের ভাষা লাগাম ছাড়ে।
মুখের ভাষার কদর্যতায় বিকট সব গন্ধ ছাড়ে।
ভাষাও যেন মুখ লুকাবে অন্ধকারে।
দেশটা এবার বিদেশ হবে স্বপ্ন দেখে।
আসলে বেচবে তাকে বেশ্যালয়ে।

বলিরেখা – মোহিত ব্যাপারী

জীবন কেন এত চুপচাপ !
শরীরের বলিরেখায় বয়সের ছাপ।
সব কিছু দেখেশুনেও সে চুপচাপ।
নিভে আসা শান্ত প্রদীপশিখার ন্যায়
ধিকিধিকি কেবল জ্বলছে সে আজ।
দপ করে জ্বলে উঠেও সে নিভে যায়
এক মুঠো শান্তির বিনিময়ে।
সেকাল একালে মিলছে না আর।
একে একে সব ছেড়ে চলে গেছে তাকে।
কালের প্রবাহে একলা ভাসমান।
বলিরেখার ভাঁজে ভাঁজে লুকানো আছে
কালের যত জীর্ণ লুপ্ত ইতিহাস।
কেউ আর চায়না তাকে ফিরে একবার।
তবুও সে অনেক কিছু বলতে চায়।

২০২০ – মোহিত ব্যাপারী

দু’হাজার কুড়ি — তোমাকে বরণ করেছি
রাত্রির ঝলমলে আলোর রোশনাইয়ে,
আনন্দঘন উল্লাসে হৃদয়ের আলিঙ্গনে।
পুরাতনকে পিছনে ফেলে নূতনের আহ্বানে,
নূতন আলোর সন্ধানে।
খাওয়া দাওয়া নাচ গান আর হুল্লোড়।
দ্যট ওয়াজ দ্য পার্টি নাইট।
কেউ বা নূতন স্বপ্নে বিভোর হয়েছিল
নূতন সূর্য ওঠা ভোরে।
কেউ বা পুরাতন স্বপ্নকে নিয়ে খেলা করে।
কিন্তু ধীরে ধীরে বিষাদের কালো মেঘ
গ্রাস করেছে সমস্ত আকাশ।

কুড়ি কুড়ি — এক মহা প্রলয়ের দিনকাল।
প্রতিটি মুহূর্ত এক আতঙ্কের দিনলিপি।
বিশ্বজুড়ে একদিকে মহামারী দাবানল আর
সমুদ্রের ফুঁসে ওঠা তীব্র সাইক্লোন।
কখনো জ্যোতিষ্কদের পৃথিবীর পাশ ঘেঁষে
হুস করে চলে যাওয়া।
মহাজাগতিক সব মহা বিস্ময়ের স্মারকচিহ্ন।
উল্কির মত বুকে এঁকে নিয়ে চলেছি আমরা।
স্তব্ধ জীবন কেবলই মৃত্যুর প্রতীক্ষা করে।
জীবনের প্রতিটি অঙ্গ প্রত্যঙ্গ কেড়ে নিয়ে,
জীবনকে করেছে বিকলাঙ্গ।
মৃত্যুর মিছিলে পা মেলাতে মেলাতে স্বর্গ নরকও
আজ স্যাঁতসেঁতে গরম আর ঘামের গন্ধে বিরক্ত।
চারদিকে পিশাচের মেলা বসেছে।
দেবতাদেরও পালাবার জায়গা নেই।
তালা পড়েছে মন্দির মসজিদ ও গির্জাতে।
রুদ্ধ দুয়ারের ওপারে ভগবানও তীব্র আর্তনাদে
চিৎকার করে ওঠে, ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি।

কুড়ি কুড়ি অভিশপ্ত এক পৃথিবীর আখ্যান।
কুড়ি কুড়ি এক জীবাণুর বিষাক্ত ছোবল।
কুড়ি কুড়ি মানুষের কর্মহীন বিষাদের ছোটগল্প।
ঘটনা দুর্ঘটনা ঘাত প্রতিঘাতের প্রতিটি মুহূর্ত।
কুড়ি কুড়ি বন্দি মানুষের গৃহ কারাগার।
বিশ্বজুড়ে রচিত হয়েছে অন্ধকারের উপন্যাস।
রাত্রির আঁধারে সরিয়ে ফেলে প্রিয়জনের লাশ।
কুড়ি কুড়ি শুধুই কি নিয়েছে, দিয়েছেও অনেক।
মানুষকে ফিরিয়ে দিয়েছে মানুষের কাছে।
ফিরিয়ে দিয়েছে তার অফুরন্ত অবসর।
মানুষের প্রতি মানুষের ভালোবাসা সহানুভূতি,
মানবিকতা, পাশে দাঁড়ানোর অঙ্গীকার।
পৃথিবীকে দিয়েছে প্রাণভরে শ্বাস নেবার অধিকার,
সুস্থ হয়ে ওঠার অবসর।
অমাবস্যার অন্ধকার পার হয়ে একদিন
পূর্ণিমার চাঁদ উঠবে আকাশে।
নূতন পৃথিবী ফুলে ফলে ভরে উঠে ফলবতী হবে,
নূতন বৃক্ষশাখে নূতন আলোর কিরণে।
নূতন ভোরের আলো একদিন ঠিকই উঠবে ফুটে।

আমরাই স্বাগত জানাবো তাকে।

অন্য কোনখানে – মোহিত ব্যাপারী

আমি কবি হতে চেয়েছিলাম শুধু তোমার কাছে।
তোমার হৃদয়ে কবিতার আলপনা আঁকতে চেয়েছিলাম,
হৃদয়ের অনুরণন তোমারই অনুভূতি অনুভবে।
কবিতা হয়ে কবিতার নেশায় মশগুল।
আমি কবিতা শোনাতে চেয়েছিলাম শুধু তোমাকেই।
শব্দের ছন্দে মিলনের গ্রন্থিতে গ্রন্থিতে গেঁথেছি যে মালা
তোমারই উপহার সাজাব বলে।
সময়ের সাথে সাথে ঘুণ ধরেছে গিঁটে গিঁটে।
আলগা হয়েছে গ্রন্থি, ছিঁড়ে গেছে সব বন্ধন।
সাজানো সাধের বাগান তছনছ করে দিয়ে গেছে
অবৈধ অনুপ্রবেশকারী।
গ্রীষ্মের দাবদাহে সোনালী হয়েছে সব সবুজ।
তোমারই কবিতা আজ দিকভ্রান্ত ঘুরে ফেরে
অন্য কোনখানে, অন্য কোন কানে।
বাসি মালা পড়ে থাকে হৃদয়ের গোপন কুঠুরিতে।

সম্পর্ক – মোহিত ব্যাপারী

‘সম্পর্ক’ – কেবল একটি শব্দ নয়।
অনুভূতির হাজার ক্রিয়ায় মনের যত বিক্রিয়া।
জলের যেমন হাইড্রোজেন আর অক্সিজেন,
সম্পর্কেরও তেমনি দুটি মন।
সম্পর্কের হাজারো শাখা প্রশাখা
মা-বাবা ভাই-বোন বন্ধু পরিজন,
অনাত্মীয় প্রতিবেশী চেনা অচেনার ভিড়।
অনুভূতিগুলো খুব দামি।
সম্পর্ক মানে বেঁধে বেঁধে থাকা মনে মনে।
সম্পর্ক জোর করে গড়ে ওঠেনা।
সম্পর্ক গড়ে ওঠে তিল তিল করে,
মনের আলো বাতাস পেয়ে পেয়ে।
সম্পর্ক গড়ে ওঠে না মেজাজ আর শর্তে।
সে চায় মনের জানালায় দখিনা বাতাস।
অনুভূতি তার খাদ্য।
অনুভূতির বিষক্রিয়ায় ফাটল ধরে মনের দেয়ালে,
ঘরের কোণে কোণে।
অনুভূতির শীতলতায় স্যাঁতসেঁতে অন্ধকার।
অনুভূতির শিকড়ে জল দাও,
সে তোমায় ফল দেবে।

যদি জানতে চাও – মোহিত ব্যাপারী

আমাকে যদি জানতে চাও
কেবল আমার বাইরেটা দেখ না,
আমার অন্তর বাহির মিলিয়ে দেখ।
বাইরে যদি বা প্রলেপ থাকে, অন্তরে খাঁটি।
কঠিনের আবরণে কোমল হৃদয় বাস করে।
আমাকে যদি জানতে চাও
শুধুই আমার কাছে এস না,
ওই দূর থেকেও অপলকে দেখে নিও।
কাছে এলেই যে সব চেনা হয়ে যায় না।
দূরেও যে থাকে চেনার অনেক কিছু বাকি।
আকাশের সব রাত যেমন পূর্ণিমা নয়,
আঁধারও যে তাতে থাকে কিছু মিশে।
আমাকে যদি জানতে চাও
দূর থেকেও চিনে নিও বেশ করে।
কাছে এসে দেখলে হয়ত বা জ্বলন্ত অঙ্গার
কিংবা পুড়ে শেষ হওয়া একমুঠো ছাই।

হলুদ শাড়ি – মোহিত ব্যাপারী

হলুদ বরণ হলুদ শাড়ি।
সামনে যেজন সেজন নারী,
দুধে আলতা গা।
শরীর জুড়ে নয়নাভিরাম শোভা।
ঠোঁট দুটি তার লাল টুকটুক
গলে সীতাহার।
চোখ দুটি তার টানা টানা
যেন কুমোরটুলির হাতে আঁকা।
ধনুক বাঁকা দু’ধারে তার
ভুরুর মাঝে লাল একটি টিপ।
বাঁশির মত নাকটি তার
মুখের আদল পবিত্র নিষ্পাপ।
মাথা ভরা ঘন কালো চুল
দুলছে কানে ঝুমকোলতার দুল।
শরীরখানি একটু ভারী
এক দেহতেই লক্ষ্মী সরস্বতী।

মৃত্যুর রং – মোহিত ব্যাপারী

এ মায়াবী নগর ছেড়ে
মৃত্যুর মিছিলে পা মিলিয়েছে
প্রতি নিয়ত, এ পৃথিবীর মানুষ যত।
লাল নীল কমলা গোলাপি সবুজ,
চারিদিকে কেবল আলোর রোশনাই।
কেবলই চোখ ধাঁধিয়ে যায়।
তবুও এ পৃথিবী ছেড়ে যেতে হয়।
নতুন রঙের সন্ধানে মৃত্যুর পুরীতে
এ জীবন ফিকে হয়।
জীবনের রঙ বদলায় মৃত্যুর রঙে,
রঙ খোঁজে জীবনের ওপারে।
মৃত্যুরও কি রঙ হয় ?
কেমন সে রঙ? হয়তো ধূসর।
গোটাটাই ছেয়ে যায় ছাইয়ের চাদরে।

একটুখানি আলো চাই – মোহিত ব্যাপারী

শিক্ষা আনে চেতনা, শিক্ষাই বিকাশ।
শিক্ষা দেয় জীবনের মুক্তি।
গ্রন্থকীট হয়ে শুধু বিদ্বান হওয়া নয়।
শিক্ষা চাই, জীবনের শিক্ষা।
মনের অন্ধকার রাতের চেয়েও ভয়ানক।
থমথমে গুমোট পরিবেশ।
একটুখানি আলো চাই মনের দুয়ারে।
মানুষের মাঝে মানুষই মানুষের শত্রু।
হিংসার আগুনে জ্বলে পুড়ে ছাই।
হিংসার আগুনই হিংসার জন্ম দেয়।
অশিক্ষার অন্ধকার তাকে ছড়িয়ে দেয়।
অধিকাংশ হিংসাই কারণের থেকে অকারণে হয়।
মনের অন্ধকারই তার দায়ভার নেয়।
একে অন্যের দিকে বন্দুক তাক করে আছি।
সুযোগ পেলেই খুলিটা উড়িয়ে দেব।
তারপর অনুশোচনায় আঙুল চুষি।
শিক্ষা এলেই আলো আসবে একদিন।
অস্ত্র সেদিন লুটিয়ে পড়বে ভূমিতলে।
একটুখানি আলো চাই মনের দুয়ারে।
প্রকৃত শিক্ষাই আলো দিতে পারে।

আমি বদলে যাব – মোহিত ব্যাপারী

চেনা পরিবেশ বদলায় অচেনার ভিড়ে,
দিন বদলের খেলায়।
মুহূর্তরা ছাপ রেখে যায়
সময়ের ষড়যন্ত্রে।
বদলে যাওয়াটা খুব দরকার।
জীবন থেমে থাকে না।
স্বপ্নেরা হারিয়ে যায় অনেক দূরে,
দূর পাহাড়ের কোলে।
স্বপ্নেরা ভেসে যায় মেঘেদের সাথে,
নিশ্চুপ নির্জন নিরুদ্দেশে।
আমিও একদিন বদলে যাব,
তোমারই মতন করে।
নিজেরই সাথে কথা বলে নেব,
একাকীত্বের অভিসারে।

মোহিত ব্যাপারী | Mohit Bapari

Kolkata to Kashmir Trip | আবেগের নাম কাশ্মীর | 2023

New 18+ Bangla Galpo | বৈশালী পাড়ার প্রতিমারা | Saswata Bose

Pancha Byanjan Galpo | পঞ্চব্যঞ্জন পর্ব ২ | জয়ন্ত কুমার সরকার | Top New 2023

Bangla Galpo Ochena | অচেনা | শওকত নূর | Top New 2023

Shabdodweep Web Magazine | High Challenger | Shabdodweep Founder | Sabuj Basinda | Bengali Poetry | Bangla kobita | New Modern Bengali Poetry 2024 | Poetry Collection | Book Fair 2024 | bengali poetry | bengali poetry books | New Modern Bengali Poetry pdf | Bengali Poem Lines for Caption | bangla kobita | poetry collection books | poetry collections for beginners | poetry collection online | poetry collection in urdu | New Modern Bengali Poetry Ebook | poetry collection clothing | new poetry | new poetry 2023 | new poetry in hindi | new poetry in english | new poetry books | new poetry sad | new poems | new poems in english | new poems in hindi | Bengali Poem Lines for Caption in pdf | new poems in urdu | bangla poets | indian poetry | indian poetry in english | indian poetry in urdu | indian poems | indian poems about life | indian poems about love | indian poems about death | Best Bengali Poetry Folder | Best Bengali Poetry Folder 2023 | story writing competition india | story competition | poetry competition | poetry competitions australia 2023 | poetry competitions uk | poetry competitions for students | poetry competitions ireland | Bengali Poem Lines for Caption crossword | writing competition | writing competition malaysia | Bengali Poem Lines for Caption in mp3 | writing competition hong kong | writing competition game | Best Bengali Poetry Folder pdf | Trending New Modern Bengali Poetry | New Modern Bengali Poetry – video | Shabdodweep Writer | bee poem | poem about self love | story poem | poetry angel | narrative poetry examples | poetry reading near me | prose poetry examples | elegy poem | poetry reading | poetry websites | protest poetry | prayer poem | emotional poetry | spoken word poetry | poem about god | percy shelley poems | jane hirshfield | spiritual poems | graveyard poets | chapbook | poems about life | poems to read | English Literature | New Modern Bengali Poetry examples | poems about life and love | elizabeth bishop poems | poems about women | sister poems that make you cry | famous quotes from literature and poetry | mothers day poems from daughter | poem about community | New Modern Bengali Poetry Ranking | positive Best Bangla Kobita Collection | Bengali Poem Lines for Caption about life struggles | toni morrison poems | good bones poem | google poem | funny poems for adults | inspirational poems about life | friendship poem in english | paul laurence dunbar poems | freedom poem | sad poetry about life | freedom poem | sad poetry about life | Natun Bangla Kabita 2023 | Kobita Bangla Lyrics 2023 book | New New Modern Bengali Poetry | Writer – New Modern Bengali Poetry | Top Writer – Natun Bangla Kabita 2023 | Top poet – Natun Bangla Kabita 2023 | Poet list – Kobita Bangla Lyrics 2023 | Archive – New Modern Bengali Poetry | Bangla Full Kobita | Online Full Kobita Bangla 2023 | Full Bangla Kobita PDF | New Bangla Kabita Collection | Shabdodweep Online Poetry Story | Poetry Video Collection | Audio Poetry Collection | Bangla Kobitar Collection in mp3 | Bangla Kobitar collection in pdf | Indian Bengali poetry store | Bangla Kobita Archive | All best bengali poetry | Indian New Modern Bengali Poetry | Best Poems of Modern Bengali Poets | Best Collection of Bengali Poetry in pdf | Bengali Poetry Libray in pdf | Autograph of Bengali Poetry | India’s Best Bengali Writer | Shabdodweep Full Bengali Poetry Book | Bengali Poetry Book in Google Bookstore | Google Bengali Poetry Book | Shabdodweep World Web Magazine | Shabdodweep International Magazine | Top Poems of Modern Bengali Poets | Bangla Kobita in Live | Live collection Bengali Poetry | Bengali Poetry Recitation Studio | Sabuj Basinda Studio for Bengali Poetry | Bangla Kobita Sankalan 2023 | Shabdodweep Kabita Sankalan | New Bengali Poetry Memory | History of Bengali Poetry | History of Bangla Kobita | Documentary film of Bengali Poetry | Youtube Poetry Video | Best Bangla Kobitar Live Video | Live Video Shabdodweep | Bengali to English Poetry | English to Bengali Poetry | Bengali Literature | Full Bengali Life of Poetry | Bangla Kobita Ghar | Online Live Bangla Kobita | New Bengali Poetry House | Full Bengali Poetry Collections PDF | Library of Bangla Kobita | Bengali Poetry and Story | Bengali Poetry Writing Competition | World Record of Bengali Poetry Writing | Peaceful Poetry | Online New Modern Bengali Poetry Selection | New Modern Bengali Poetry in english | Theme in Bengali Poetry funny | New Modern Bengali Poetry for instagram | romantic bengali poem lines | bengali short poem lyrics | bengali kobita caption for fb dp

Leave a Comment

Seraphinite AcceleratorOptimized by Seraphinite Accelerator
Turns on site high speed to be attractive for people and search engines.