Best Beautiful Poetic Stanza | Bangla Kobita

Sharing Is Caring:

মজদুর (পার্ট থ্রি) – রাজীব হোসেন

তুমি তো ঠোঁটে চুম্বনের স্পর্শ দিয়েছিলে।
সে এক অমৃতময় অনুভূতি।
তখন খুব অসুস্থ ছিলাম।
ভালোবাসার অসুখে আক্রান্ত।
তোমাকে একদিন না দেখিলে মনে হত,
আমার ভিতরে ‘তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ’ শুরু হতো।
বুকের ভেতরটা কেমন যেন ‘ধড়ফড়’ করত!
সেইসব এখন অতীত …
এই হৃদয়ে আর ‘উথাল-পাতাল’ ঢেউ খেলে না!
তোমার জন্য এই বুক কান্নাও করে না।
এখন আমার দেহ রোদে পুড়ে …
দিনের শেষে দেহ থেকে ঘামের গন্ধ আসে।

ওহে সংসরতি – রাজীব হোসেন

সত্যি খুব অবাক লাগছে!
একটাও ভালোবাসা নেই।
যে-না শুধু আমাকেই ভালোবাসবে,
আমার বলার আগেই সে বুঝে ফেলবে!
যার মস্তিষ্কের “নিউরনে” আমি থাকবো।
যে প্রতি অন্ধকারে “ল্যাম্পপোস্ট” হবে;
যার আলিঙ্গনে শুধু আমিই “সন্ধি” হবো।
যার বাণীর প্রত্যেকটা শব্দ হবো আমি,
আমার শান্ত ঘুমের সে কারণ হবে।
এমন সংসরতি কোথায় পাবো?
পৃথ্বী সত্যিই কি গোল!
উফফ! একটুকু শান্তি নেই।

বছর তিন – রাজীব হোসেন

জানো কত স্মৃতি
বাঁ-পকেটের বুক পাশে রয়ে গেছে!
মায়ের দুটো নত্ ছিলো; সোনার।
আদর করে দিয়েছিল বড় বৌমা-কে।
কিন্তু; কোনদিন সে তা পড়েনি
মাঝে মাঝে আলমারি খুলে
নত্ দুটো নাড়াচাড়া করে।
নাকে দুটো ফুটো করে দিবে
বলেছিল শ্বাশু-মা
আজ তিন বছর হয়ে গেল
মাঝে মাঝে-ই আলমারি খুলে বৌমা …

জখম ক্লান্ত লোচন – রাজীব হোসেন

ঐ; ঐ রাজীব ওঠ
ভোর চারটা বেজে গেছে
বহুদূর যেতে হবে যে
হ্যাঁ; যেতে পারি কিন্তু,
কবরস্থান-র ওখানে যে
বট গাছটা, দাঁড়ি ছত্রভঙ্গ হয়ে
হাত বাড়িয়ে দাঁড়িয়ে আছে
যতসব ওটা দেখে-ই ভয়।
শুনেছি পুকুর পাড়ে তেঁতুল
গাছের নিচে তারা সভা করে!

ওই দেখ সুদীপ পাঁচিলের
ওপারে, মনে হয় কিছু ছায়া
হেঁটে যাচ্ছে, শুনতে পাচ্ছিস
হেঁটে যাওয়া ছম ছম শব্দ !
আচমকা কপাট ঠক ঠক
করে বেজে উঠলো।
নিদ্রায় আচ্ছন্ন ক্লান্ত লোচন
চিন্তাশূন্যে স্পন্দন করে উঠল।
‘তোরণের’ ওপাশ থেকে
সুদীপের মুখনিঃসৃত ‘বয়ান’
ভেসে আসছে ‘ঐ রাজীব
ওঠ কাজে যাবি না !
বহুদূর যেতে হবে যে …

আমার গল্পগুলো – রাজীব হোসেন

মুখের ডগা খামোশ হয়ে গেছে,
বিশেষতঃ চোখ যখন সিক্ত হয়।
কি হাসছেন তো!
সত্য যখন সামনে দাঁড়িয়ে থাকে,
আত্মা মিথ্যার সাথে কেঁপে ওঠে।

দুঃখের আঠা বুকে আঁকড়ে ধরে!
সুখ প্রায়-ই দূরে সরে গেছে;
অনেক কাঁদে বক্ষঃস্থল!
সব জানে চিত্ত, তবুও হাসছি;
সত্যি বলতে কেউ-ই গ্রাহ্য দেয় না।

জীবনের প্রতিটি বক্ররেখা আঁকাবাঁকা।
হাসি ফেভিকল দিয়ে বন্ধ!
রক্ষা পেয়ে যাবে কোথায় ?
তার কোনো জায়গা নেই।

মাঝে মাঝে পিছনে তাকায়,
ব্যর্থতা মাথা নীচু করে দাঁড়িয়ে আছে।
কিভাবে লুকাবো, কোথায় লুকাবো!
শুধু সিডর নয় আত্মাও এক পাহারাদার।

আমার নাম মজদুর – রাজীব হোসেন

হ্যাঁ আমি মজদুর!
আমি মজদুর বলেই;
আমার হওয়া না হওয়ার
কেউ ন্যায্যতা দেয় না …
আমি ভেড়া ছাগলের মতো,
তাই আমার কোনো অস্তিত্ব নেই।
আমারই রক্তে সেজেছে
তাদের ভিত্তি ভরাট।
অট্টালিকা গুলি নির্মাণের পরে,
কেউ আমাকে মনে রাখে না!
বরং কবর হয়ে যায়,
দীর্ঘ টাওয়ারের নীচে।

হ্যাঁ আমি ঝুলছি!
ছাদের কিনারা থেকে,
আমার নাম মজদুর!
জীবিত তবে দুরবস্থায়,
আমাকে যে কোথাও গেঁথে দাও
শ্বাস প্রশ্বাস নিবো।
কারণ চিৎ আমার পাথর;
নিজেকে জ্বলন্ত চিতায় ঝাঁপিয়ে
পরতে পিছপা হয় না।
যখন কোন কাজ পাওয়া যায় না,
তখন একজন মজদুর হয়ে যায়।
শুনেছি আজ ‘শ্রমিক দিবস’
আমার মুখে একটু হাসি ফিরিয়ে
দাও সুট বুটের সাহেব।

বিকাশ তুমি কোথায় – রাজীব হোসেন

মাস গেছে বছর গেছে
আর গেছে অনেক উৎসব
কখনো মন্দির কখনো মসজিদ
কখনো গুরুদ্বার কখনোবা গির্জা
প্রতি মুহূর্তে করেছো তুমি
বলো তো বিকাশ তুমি কোথায় ?

কখনো হিন্দু কখনো মুসলিম
কখনও কাশ্মীর কখনো-বা পাকিস্তান
প্রতি মুহূর্তে করেছো তুমি
বলো তো বিকাশ তুমি কোথায় ?

জীবন বিচলিত হচ্ছে
জীবন কষ্ট পাচ্ছে
হাসপাতাল থেকে হাসপাতালে
জীবন ঘুরে বেড়াচ্ছে
অসহায় সব নর-নারী
বলো তো বিকাশ তুমি কোথায় ?

কোথাও কবরস্থান ভরা
কোথাও ভরা শ্মশান
কোথাও কাতারে রোগী
কোথাওবা কাতারে বডি
বলো তো বিকাশ তুমি কোথায় ?

চিৎকার করে জীবন কোথাও
কোথাও বন্ধ হচ্ছে চক্ষু
প্রতিটি শ্বাস করছে যুদ্ধ
মনুষ্যের প্রতিটি আশা দিচ্ছে দম
বলো বিকাশ তুমি কোথায় ?

এখানে ভেষজ এর দুর্ভিক্ষ রয়েছে
অক্সিজেনের আকাল চারিদিকে
চলছে জীবন মৃত্যুর ত্রাহিমাম
বলো বিকাশ তুমি কোথায় ?

মারা গেছে মানবতা
পশুতে পরিণত হয়েছে চেয়ার
যাকেই দেখি ভরছে
নিজের নিজের ব্যাগ
বলো বিকাশ তুমি কোথায় ?

করছে মনুষ্য চিৎকার
ভাতের আশায় ভুগছে
পৃথিবী শূন্য! শূন্য মরুভূমি
হচ্ছে প্রতিটি হৃদয়ের কোণ নির্জন
এখানে কাঁদছে প্রতিটি প্রাণ
বলো বিকাশ তুমি কোথায় ?

কোথাও এতিম
কোথাও নিরস্ত মাতা পিতা
কোথাও বিধবা কোথাওবা বিধুর
হচ্ছে পরিবারের পরিবার নির্জন
বলো বিকাশ তুমি কোথায় ?

হাসির আড়ালে – রাজীব হোসেন

আমি একে একে কত জন্ম হতে দেখেছি !
একে একে সবাই কে চলে যেতে দেখেছি,
নক্ষত্রের কান্না ছড়িয়েছে পুরো বাড়ি,
বারোমাস চলেছে শুধু হাসির ধর্মঘটে।
হয়তো আমিও ভস্মীভূত হলে বেঁচে যেতাম;
আজও আমি বেঁচে,
শুধু মৃত্যুর স্বাদ পেতে।

প্রতিদিন কিছু মিথ্যে হাসির-
আড়ালে চাপা পড়ে যায়,
আমার জীবনের অনেক সত্য গল্প!
একমাত্র আয়নাটাই জানে
ভেতরের প্রতিচ্ছবিটা ঠিক কেমন দেখতে!
তাই নয়নে আর অশ্রু বয় না,
কারণ কষ্ট পাওয়াটা এখন অভ্যাসে-
পরিণত হয়ে গেছে।

মাঝে মাঝে মনে হয়,
পৃথিবীর সমস্ত সমস্যার কারণ আমি;
আমি না থাকলে সবাই ভালো থাকবে।
একটা সময় ছিল যখন সবার-
সঙ্গে মিশতে ভালোবাসতাম,
এখন সবার থেকে দূরে থাকি!
কারণ ব্রহ্মাণ্ডের সমস্ত কষ্ট-
এখন আমার কাছে,
ভালো লাগে কষ্ট গুলোকে-
আঁকড়ে ধরে রাখতে,
আমি না হয় কষ্ট নিয়েই বেঁচে থাকি।

বাঁ-পাশের দরজা – রাজীব হোসেন

আমি যখন মরবো
আমার কবরের বা-পাশে
ছোট্ট একটা কাঠের দরজা
রেখে দিও;
আমার প্রিয়তমা এসে যদি
দরজা ঠক ঠক করে …

ছেড়ে আসা শহর – রাজীব হোসেন

শহরের উঁচু উঁচু বিল্ডিংগুলো
আমাকে স্বীকার করে নিতে পারেনি,
পারেনি আপন করে নিতে।

ট্রাফিকের চিৎকারে ব্যস্ত শহর
নিজেকে আলোকিত করতে ব্যস্ত
এবং সুখের ভিড়ে হারিয়ে গেছে বিশ্বাস।

নর-হিংস্র শহর শোষণ করেছে মোর রক্ত
কাঁটার পায়ে বুকে মেরেছে বারুদের লাথ
এবং কৃমি আক্রান্তে গ্রাস করেছে সর্বস্ব।

ভেবেছিলাম সুখ পাবো; আর শান্তি!
কিন্তু শহরে সত্য কোথায়! সব মিথ্যা।
যেন সবাই ভস্মাসুরে পরিণত হয়েছে।

জানি না কোন্ হিরা-মুক্তা খুঁজে
যেন নাট্যশালায় রঙ্গমঞ্চ চলছে
শুধু অভিনয় আর অভিনয়।

শুনেছিলাম এই শহর সভ্যতার শহর
এখানে সভ্য সমাজ বাস করে বলে!

কিন্তু না, এই সভ্য সমাজ সত্যের
টুঁটি চেপে ধরে; এবং
সত্য-ধ্বনি পুড়ে ছাই হয়ে যায়
সভ্য অ্যাসিডের স্রোতে।

বিজয়া দশমী – রাজীব হোসেন

এসো আজ অধর্মের উপর
ধর্মের জয় করি,
সবাই মিলে বিজয়া দশমী
পালন করি।
এদিক ওদিক উকি মারি,
অপরের মন্দগুলি নিন্দা করি।
নিজের খারাপ লুকিয়ে রাখি,
আর ইমানদারির যজ্ঞ করি।
প্রতি বছর রাবণের পুতলা জ্বালি,
প্রত্যেক মনের মধ্যে রাবণ লুকিয়ে রাখি।
বিজয় ভালো তাহলে মন্দকে
অবশ্যই পুড়তে হবে,
রামের দেশে সীতাকে কেন
ধর্ষিত হতে হবে ?
এসো প্রতিশ্রুতি নিই প্রত্যেক
মহিলাকে সম্মান করি,
এসো আজ বিজয়া দশমী
পালন করি।

ব্যর্থতা – রাজীব হোসেন

অন্তরের ব্যথা লিখতে এসেছি,
প্রেমের গান সব ভুলে গেছি।
যখন প্রেমের গান বসি লিখতে,
শব্দ যেন বসে বসে কাঁদছে।

গান গজল সব যেন রেগে,
ভাবনা ধারণ করেছে নির্বাকে।
কলমের ব্যথার চিৎকারে,
ডাইরির পেজ বিরক্তে।

সবাই বলেছে প্রেম লিখতে,
প্রতিটি হৃদয়ে ভালোবাসা জন্মাতে।
প্রতিটি চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে,
তবুও চাইনি কারো মনে বেদনা ভরে দিতে।

ওগো নদী শুনো – রাজীব হোসেন

দেখতে তুমি সম্পূর্ণ নারী;
সুন্দর যৌবনের সাথে সাথে
মাদকে ভরা শরীর।

আমি দত্তক হতে চাই তোমার,
সিঁদুর ছাড়া সম্পর্ক বজায়
রাখতে চাই।

ছোট ছোট বিষয়ে হাসি, আর
হাসতে হাসতে আলিঙ্গন এবং
সম্ভোগে দিশেহারা হতে চাই।

ভেজা ডাইরি – রাজীব হোসেন

কত বছর হয়ে গেছে নিজেকে
ভালোবাসি না আর,
হিমঘরে যত্ন করে রেখে দিয়েছি
বস্তায় বাণ্ডিল করে,
আঁধারে যখন কালো দাগ লাগে
বালিশ ভেজায় আঁখি।

বৃষ্টির জলে স্বপ্নের ডাইরি
গেছে ভিজে
অক্ষর গুলো থিতিয়ে ঝাপসা
হয়ে গেছে
যা আর বোঝা যায় না।

এই কুচুটে সমাজ থেকে গায়েব
হয়ে যেতে চাই
যেভাবে জাদুকরের বাক্স থেকে
একজন শিশু ভ্যানিশ হয়ে যায়।

স্বপ্নগুলো এখন ‘জ্বীন’ হয়ে গেছে
যাকে দেখতে পাওয়া যায় না
শুধু মগজে রয়ে গেছে
কাল্পনিক হয়ে।

জানতে চাই – রাজীব হোসেন

আমি অনেক কিছু জানতে চাই।
অনেক কিছু চাই বুঝতে।
কেন বড়ো শহরের অট্টালিকা
গুলিতে চিৎকার শোনা যায়!
কেন সেই মহল গুলিতে সূর্য
ডোবার শব্দ পাওয়া যায়! কেন?

মানুষ মরে কেন! জন্ম কেন হয় ?
জীবন-মৃত্যুর রহস্য কী! জানতে চাই।
শরীরের বিনাশই কি আত্মার বিনাশ!
তাহলে স্বর্গ-নরক আছে কোথায়?
আকাশের ঐ পারে কী! জানতে চাই সব।

আমি এখন চাই আকাশ থেকে
আমার জন্য এক মোটা
কিতাব নাজিল হোক।

আর বইয়ের সেই প্রত্যেকটা পাতা
পড়ে ইহলোক এবং দেবলোকের
সমস্ত রহস্য জেনে নিই।

সব রহস্য ঈশ্বর জানেন বলে!
কিন্তু, না ঈশ্বর এসেছে
আজ পর্যন্ত; না বই।

প্রকৃতির শৃঙ্গার – রাজীব হোসেন

আজ প্রকৃতি করেছে শৃঙ্গার
সুগন্ধী ফাগুনে বাতাসে,
বিচিত্র ফুলের ঋতু রঙ্গে
কুসুম কোমর দোলাই নৃত্যে।

ভ্রমর করে ঘূর্ণি ভ্রমণ
ফুলের মধু পান করে,
ডানার দিকে তাকিয়ে তারা
আকাশে উড়ে বহু অলঙ্কারে।

নক্ষত্র সূর্য পাহাড় পর্বত
দিবা রাত্রি থাকে হাসিতে,
সেই স্নিগ্ধ শান্ত বাতাসে
নিশিতে চাঁদ সঙ্গী হয়ে।

নদীর ঐ প্রান্তে সূর্য উঠে
সাগর এর প্রেমে মিশে,
তরঙ্গ যখন উঠছে বেগে
সমুদ্রের নীচে জাহাজ উড়ে।

ওরা – রাজীব হোসেন

তোমাদের শিরা উপশিরায়
প্রবেশ করবে ওরা!
রক্তে রক্তে করবে চলাচল,
অক্টোপাসের মতো তোমাদের
হাত-পা জড়িয়ে ধরবে।
আর ওরা তোমাদের মগজে
করবে কব্জা।
তখন তোমরা রোবটে পরিণত
হয়ে যাবে; এবং
রিমোট থাকবে ওদের হাতে!
তোমরা চাইলেও আর কিছুই
করতে পারবেনা; কারণ
অসুরেরা ভারতের নাগপুর থেকে
ছড়িয়ে যাবে পুরো পৃথিবীতে।
আর চিবিয়ে খাবে তোমাদের
কঙ্কালসার দেহ।
তখন তোমাদের জীবনে আর
প্রেম আসবে না।
কোন নারীর স্পর্শও পাবে
না তোমরা।
শুধু কঙ্কাল আসবে তেড়ে
মরদের শহর থেকে।

তোমাকে চাওয়া কি ভুল ছিল – রাজীব হোসেন

আমার উপর সমস্ত
অধিকার তোমারই ছিল
বাগানের সবচেয়ে সুন্দর
গোলাপ তোমার নামে ছিল
তা স্বত্বেও তোমার কাছে
আমার কোন অস্তিত্ব ছিল না
না আমার কোন মর্যাদা ছিল
একটা সময় ছিল যখন
আমার নিজস্ব কিছু নীতি ছিল
তোমাকে চাওয়া সত্যি কি
আমার কোন ভুল ছিল!

তোমার অভিযোগের বাক্স
কখনো শেষ হয় না
হে মৃত্যু আমাকে তোমার
বাহুতে শক্ত করে ধরো
চলার পথে কোন নাগ
আমাকে দংশন করুক
আমার হৃদয়ের ব্যথা
আমার আবেগ পূর্ণ শব্দ
তোমার কাছে কোন মূল্য নেই
হ্যাঁ আমি জীবিত কিন্তু
আমার প্রতিটি দীর্ঘশ্বাস
অকেজো হয়ে পড়েছে
সত্যি তোমাকে চাওয়া কি
আমার কোন ভুল ছিল
যাকে পারস ভেবেছিলাম
খুলেছি বক্স তো শুধু ধুলো ছিল।

রাজীব হোসেন | Rajib Hossain

Anabasarakalina besha of Jagannath | অনবসরকালীন বেশ | অভিজিৎ পাল

19 types of Mashan Thakur | মাসান ঠাকুর | Ranabir Chanda

The Jagannath God in Puri | পুরুষ-প্রকৃতি এবং জগন্নাথ

Women’s role in Christian society | খ্রীষ্টীয় সমাজে নারীর অবস্থান

Bangla Kobita Abritti Songs | Mixed Kobita Bengali Kobita | Sound of bangla kobita lyrics | Sound of bangla kobita in english | Sound of bangla kobita mp3 download | bluetooth bandopadhyay kobita | bratati bandyopadhyay kobita lyrics | bratati bandopadhyay kobita mp3 download | Bangla Kobita Abritti | Best Bangla kobita MP3 Songs | Kobor Bangla Kobita.mp3 | Hits of Bratati Bandopadhyay | Bangla kobita music | Bangla Audio Book | Esho Abritti Kori | Bengali Recitation | Kobita Lyrics Poetry In Bengali | Shabdodweep Web Magazine | High Challenger | Shabdodweep Founder | Sabuj Basinda | Bengali Poetry | Bangla kobita | Beautiful Poetic Stanza 2024 | Poetry Collection | Book Fair 2024 | bengali poetry | bengali poetry books

Beautiful Poetic Stanza pdf | Bengali Poem Lines for Caption | bangla kobita | poetry collection books | poetry collections for beginners | poetry collection online | poetry collection in urdu | Beautiful Poetic Stanza Ebook | poetry collection clothing | new poetry | new poetry 2023 | new poetry in hindi | new poetry in english | new poetry books | new poetry sad | new poems | new poems in english | new poems in hindi | Bengali Poem Lines for Caption in pdf | new poems in urdu | bangla poets | indian poetry | indian poetry in english | indian poetry in urdu | indian poems | indian poems about life | indian poems about love | indian poems about death | Best Bengali Poetry Folder | Best Bengali Poetry Folder 2023

story writing competition india | story competition | poetry competition | poetry competitions australia 2023 | poetry competitions uk | poetry competitions for students | poetry competitions ireland | Bengali Poem Lines for Caption crossword | writing competition | writing competition malaysia | Bengali Poem Lines for Caption in mp3 | writing competition hong kong | writing competition game | Best Bengali Poetry Folder pdf | Trending Beautiful Poetic Stanza | Beautiful Poetic Stanza – video | Shabdodweep Writer | bee poem | poem about self love | story poem | poetry angel | narrative poetry examples | poetry reading near me | prose poetry examples | elegy poem | poetry reading | poetry websites | protest poetry | prayer poem | emotional poetry | spoken word poetry | poem about god | percy shelley poems | jane hirshfield

spiritual poems | graveyard poets | chapbook | poems about life | poems to read | English Literature | Beautiful Poetic Stanza examples | poems about life and love | elizabeth bishop poems | poems about women | sister poems that make you cry | famous quotes from literature and poetry | mothers day poems from daughter | poem about community | Beautiful Poetic Stanza Ranking | positive Best Bangla Kobita Collection | Bengali Poem Lines for Caption about life struggles | toni morrison poems | good bones poem | google poem | funny poems for adults | inspirational poems about life | friendship poem in english | paul laurence dunbar poems | freedom poem | sad poetry about life | freedom poem | sad poetry about life

Natun Bangla Kabita 2023 | Kobita Bangla Lyrics 2023 book | New Beautiful Poetic Stanza | Writer – Beautiful Poetic Stanza | Top Writer – Natun Bangla Kabita 2023 | Top poet – Natun Bangla Kabita 2023 | Poet list – Kobita Bangla Lyrics 2023 | Store – Beautiful Poetic Stanza | Bangla Full Kobita | Online Full Kobita Bangla 2023 | Full Bangla Kobita PDF | New Bangla Kabita Collection | Shabdodweep Online Poetry Story | Poetry Video Collection | Audio Poetry Collection | Bangla Kobitar Collection in mp3 | Bangla Kobitar collection in pdf | Indian Bengali poetry store | Bangla Kobita Archive | All best bengali poetry | Indian Beautiful Poetic Stanza | Best Poems of Modern Bengali Poets | Best Collection of Bengali Poetry in pdf | Bengali Poetry Libray in pdf

Autograph of Bengali Poetry | India’s Best Bengali Writer | Shabdodweep Full Bengali Poetry Book | Bengali Poetry Book in Google Bookstore | Google Bengali Poetry Book | Shabdodweep World Web Magazine | Shabdodweep International Magazine | Top Poems of Modern Bengali Poets | Bangla Kobita in Live | Live Beautiful Poetic Stanza | Bengali Poetry Recitation Studio | Sabuj Basinda Studio for Bengali Poetry | Bangla Kobita Sankalan 2023 | Shabdodweep Kabita Sankalan | New Bengali Poetry Memory | History of Bengali Poetry | History of Bangla Kobita | Documentary film of Bengali Poetry | Youtube Poetry Video | Best Bangla Kobitar Live Video

Live Video Shabdodweep | Bengali to English Poetry | English to Bengali Poetry | Bengali Literature | Full Bengali Life of Poetry | Bangla Kobita Ghar | Online Kabita Archive Library | New Bengali Poetry House | Full Bengali Poetry Collections PDF | Library of Bangla Kobita | Bengali Poetry and Story | Bengali Poetry Writing Competition | World Record of Bengali Poetry Writing | Peaceful Poetry | Online High Trend Bangla Kobita Selection | High Trend Bangla Kobita translation in english | High Trend Bangla Kobita | High Trend Bangla Kobita for instagram | romantic bengali poem lines | bengali short poem lyric

Leave a Comment