Monday, March 7, 2022

আকাশ চিনতে | আলোর ভুবনে | শূন্যতা এক | আপত্তি কোথায় | কেবা খোঁজে [শব্দদ্বীপ বসন্ত সংখ্যা] ২০২২ [কবিতা | Kobita | Poetry]

Prabir 6th

[সেরা বাংলা কবিতাগুচ্ছ ২০২২]
[৬ষ্ঠ সেরা]
[মার্চ ১ম সংখ্যা] [পঠন / দর্শন সংখ্যার ভিত্তিতে বিচার]

আকাশ চিনতে

- প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল


মাটির বুকে বুকটা রেখে 
আকাশ চিনতে বাড়িয়ে দিলাম হাত
চোখের কোণায় উঠল ফুটে 
নীল আকাশের প্রথম রশ্মিপাত।

নীলের মাঝে খুঁজেই চলি
আমার প্রেমের প্রথম অগ্নিশিখা
তাকিয়ে দেখি দাঁড়িয়ে আছে 
হলুদ রঙের শাড়ি পরে 
আমার বুকের নতুন সোহাগ 
হৃদয় জোড়া আমার অনামিকা।

হাত বাড়িয়ে দিলাম আমি 
সোহাগ ভরে ধরলো আমার হাত
ঝিলিক মেরে ছেড়েই দিলো,
কোথায় যেন লুকিয়ে গেল!
ভালবাসার পরশ নিয়ে 
বসেই আমি থাকি সারারাত।

আলোর ভুবনে

- প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল


ধীরে পৌঁছে গেছি আলোর বারান্দায় 
আলোও আমাকে মুছে ফেলতে চায়!
শুধু দুটি পায়ের চিহ্ন ছাড়া 
ওতে পাথর চাপা দাগ ছিল 
তাই তার আভাষ ইঙ্গিত 
আলোর গভীরে এক দাগ কেটে
চির চিহ্ন এঁকে বসে গেছে।
রেখেছে এক ঝলসানো আত্মপ্রত্যয়,
সে দাগ,সে অন্তরাত্মার প্রতীক 
মুছে ফেলা অতো সহজ নয়;
তাই আলোর সাথে চিরভাস্বর 
চির অক্ষয় হয়ে বেঁচে থাকা যায়। 
আমি আলোর মাঝে 
এক আলোর পাখি হয়ে 
জীবনের মহাসংগীত শোনাতে চাই 
এ পৃথিবীর আলোর ভুবনে।

শূন্যতা এক

- প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল


তুমি তো সেই কবেই গেছো চলে 
মনের কথা বলছ না আর ফোনে 
ভিজছে হৃদয় গোপন চোখের জলে 
শূন্যতা এক ভরছে আমার মনে।

উদাস চোখে খুঁজি হলুদ পাখি 
হলুদ রঙে আমার ছিল জানা 
তোমার খোঁজে ঘুরছে আমার আঁখি 
বুকের মাঝে আঁকছি ছবিখানা।

তুমি কী আর ফিরবেন আমার টানে?
ব‍্যস্ত তুমি সেথায় নিজের কাজে 
একটা পাখি ভরায় নিজের গানে
খুঁজি তোমায় সেই গানেরেই মাঝে।

এসো,তুমি এবার ফিরে এসো
দু'হাতখানা জড়িয়ে এবার ধরো
নতুন চোখে আবার ভালবেসে
যদি তোমার আপন করতে পারো।

আপত্তি কোথায়

- প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল


এক পশলা বৃষ্টি 
যদি খেতে পারে তীব্র রোদ্দুরকণা
তাহলে তোমার নরম ভালবাসায়
আপত্তি কোথায়?
ওদিকে তাকিয়ে দেখো তীব্র বহ্নিশিখা;
এদিকে শীতল প্রপাত
মাঝখানে দাঁড়িয়ে তুমি ঝাঁপাও
ভালবাসার দিক নির্ণয়ে।
আমি তোমার পেছনেই আছি 
সার দেওয়া লাইনে;
ভয় কী তোমার?
ভালবাসায় কোনো ভয় থাকতে নেই 
জয় করতে চাই দৃঢ় সাহস;
আর মনের অগাধ আত্মত্যাগ।
তাহলে তোমার আপত্তি কোথায়?

কেবা খোঁজে

- প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল


দ্রোণি চালাও কোথা 
কার গাঙ পথে?
ওখানে এখনো পারী
পারাপার হীন
সারাদিন বসে আছে অপেক্ষায় অপেক্ষায়।
ক্ষীণ আয়ু দিনাবসান দিনের মায়ায়
ওখানে বসে আর লাভ কী বলো?
চলো চলো চলো সব অন্য কোথা
অন্য কোনখানে যদি - - - - -
পারাপার পথে 
ঘাটের নৌকাখানা ঘাটে বাঁধা থাকে 
তাহলে আর কেবা বলো
পরপারে রাখে?
যেতে হবে,যেতে হবে
ও নদী পার!
আঁটকে কাকে রাখে, কে বলো কার?
সকলের যাবার পার,ওই পারখানা
মেলে যদি দিতে হয় সেই ইচ্ছেডানা
তবে আমরা তাই দেব হয়ে যাব পার!
আমাকে কেবা খোঁজে ;আমি খুঁজি কার!


আকাশ চিনতে | আলোর ভুবনে | শূন্যতা এক | আপত্তি কোথায় | কেবা খোঁজে | কবিতাগুচ্ছ | বাংলা কবিতা | সেরা বাংলা কবিতা ২০২২ | কবিতাসমগ্র ২০২২ | বাংলার লেখক | কবি ও কবিতা | শব্দদ্বীপের কবি | শব্দদ্বীপের লেখক | শব্দদ্বীপ 


Bengali Poetry | Bangla kobita | Kabitaguccha 2022 | Poetry Collection | Book Fair 2022 | Bengali Poem | Shabdodweep Writer | Shabdodweep | Poet | Story | Galpoguccha | Galpo | Bangla Galpo | Bengali Story | Bengali Article | Bangla Prabandha | Probondho | Definite Article | Article Writer | Short Article | Long Article | Article 2022


প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল Prabir Ranjan Mandal






No comments:

Post a Comment