Thursday, December 16, 2021

হারানো শীতের সকাল - কৃষ্ণকিশোর মিদ্যা [ছবি দেখে লেখা - পর্ব ৬]

হারানো শীতের সকাল

- কৃষ্ণকিশোর মিদ্যা


শীতের সকাল এলে, লেপ কাঁথা ঠেলেঠুলে,
রোদ্দুর - বাগানেতে যাই।
মাটির দেয়াল ঘেঁষে, রোদ্দুর মেখে বসে,
বই পড়ি আমরা ক'বোন ভাই।

আমড়া গাছের পাতা, সব গেছে ঝরে,
পাকা আমড়ার থোকা সবার নজরে।
ভিজে আছে কলাপাতা শিশিরের জলে,
পালং মুইড়ে খায় তিনটে ছাগলে।
ভাঁড় বাঁধা আছে দুটো খেজুরের গাছে,
গোটা তিন বুলবুলি বসে তার কাছে।

ডিমের ঝুড়ি মাথায় নিয়ে ডিমব্যাপারি হাঁকে,
ভীমের খুড়ি কুন্তীবুড়ি চেঁচিয়ে তার ডাকে।
ঝুরু ঝুরু বয়ে আসে উত্তুরে বায়,
আমার লাটাই ঘুড়ি হারালো কোথায় !

খেজুর গুড়ের গন্ধ আসে কাকার বাড়ি থেকে,
ভুরু ভুরু গন্ধ মধুর না যায় রাখা ঢেকে ।
পাড়ার কজন বুড়োবুড়ি বসে উনুন পাশে,
হাড় কাঁপানো শীত পড়েছে অগ্রহায়ণ শেষে!
পিছন বাড়ির ভুবনমাসী ঢেঁকিতে চাল কোটে,
শীতের দিনে ধান ভানলে ,শীত নাকি যায় ছুটে!
এসব দিনে তাড়াতাড়ি সকাল চলে যায়,
যদুর কাকী উঠোন - রোদে পান্তা বেড়ে খায়।

এমনি ছিল শীতের সকাল, গাঁ গঞ্জের পাড়ায়,
শীত বিলাসী মানুষ এখন, ইচ্ছে মত বেড়ায়।
শীত না এলে কান্নাকাটি, বৃথা মেলার আয়োজন,
হয় কেমনে শীত উৎসব, প্রিয় বনভোজন!

No comments:

Post a Comment