Monday, December 27, 2021

বইগুলো - জয়নাল আবেদিন [ছবি দেখে লেখা - পর্ব ১৭]

বইগুলো

- জয়নাল আবেদিন


বইগুলো পরপর সেল্ফে সাজানো ছিলো
বহু পুরানো। উপহার পাওয়া, নিজের পছন্দের কেনা। 
রবীন্দ্র রচনাবলী-শরৎ সমগ্র, নজরুলের কত বই। 
নতুন কত লেখকের কবিতার বই, ছোটগল্প সংকলন। 
বই পড়তে বড় ভালোবাসতো মানুষটা। অবসর সময় পেলেই একটা বই নিয়ে বসে পড়তো। 
কত রাত বুকের উপর খোলা বই রেখে নিশ্চিন্তে ঘুমিয়ে পড়তো।
হেমলতা কতদিন বুক থেকে বই তুলে রাখতো,
বারণ করেও ফল পেত না।

নতুন বাড়িতে উঠে যাবার জন্যই হেমলতা বইগুলো, যত্ন করে ট্যাঙ্কে ভরে রেখেছিলো। 
অন্যান্য জিনিসপত্র ও বেশ গোছগাছ করা।

সেদিন রাতে আকস্মিক শরীর খারাপ করলো
মানুষটার। নার্সিংহোম-কয়েকদিন পর হসপিটাল
দিনের -পর দিন হতাশা রকম একটু একটু করে মৃত্যুর মুখোমুখি পাঞ্জা লড়ছে থাকে। 
লড়াই হেমলতার ফিরে পাওয়ার। বেডের সঙ্গে মিশে থাকা মানুষটা ফেরত আসবে, কেউ ভাবেনি-
ভাবনার বিষয় ও ছিলো না।


লড়াইটা থামেনি তখনও। আশা ছাড়েনি ডাক্তার,
তেমনি হেমলতা-একটা নরম নেতিয়ে পড়া দড়ি
পাক খেতে খেতে কেমন শক্ত চাবুক হয়ে উঠলো।
চল্লিশ টা দিন পর মানুষটার কাঠামোতে প্রাণ ভরে নিয়ে বাড়ি ফিরলো হেমলতা।

পরিচর্যা আর আতিথ্যে ক্রমশ উঠে বসে মানুষটা
বইপড়ার মনটা জেগে ওঠে আবার। কিন্তু হেমলতা পড়তে দেয় না-শুধু খবরের কাগজটা ছাড়া।

আসলে বইগুলো উইপোকায় খেয়ে ফেলেছিলো
মনের সুখে। সেসময় জানলে মানুষটার হার্ট ফেল করে যেতো।

No comments:

Post a Comment