Thursday, December 16, 2021

খাসি - মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ [বিজয় দিবস - শব্দদ্বীপের বাংলাদেশ সংখ্যা]

খাসি

- মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ


জিতে গেল সরফরাজ ।গোলটা বেশ উত্তেজনার ছিল ।মেঘলা আকাশ ছাপিয়ে গেছে ।কাদায় লেপ্টালেপ্টি খেলা। মাঠের ওপর দিয়ে সিডর বয়ে গেছে যেন ।

সবাই সরফরাজের পায়ের দিকে নজর রাখে। বলটা আসা মাত্রই দর্শকের গরম গরম চিৎকার।

সব বয়েসী দর্শকে ঠাসা পরাণগঞ্জের দৃর্বা ঢাকা মাঠ। চারপাশে বাদাম, চানাচুর আর ঝালমুড়ির মধ্যেও তুফান ছুটেছে। হাহ-হুহ্ করছে আর খেলা দেখছে ।

অতিথিদের সামনে বেশ বড় একটা খাসি।বিজয়ীদের জন্য।


একস্ট্রা টাইম চলে গেছে ।গোলশুন্য খেলা উত্তেজনায় পরিপূর্ণ ।কিন্তু শেষটা থিতিয়ে যাচ্ছিল ।

মানুষজন দর্শকের আসন ছাড়তে শুরু করেছে ।

এসময়ে বহুগুণ শক্তিশালী চিৎকার ।শেষ পর্যন্ত 

সরফরাজ গোলে ওদের পরাণগঞ্জ ইয়াং ক্লাবের কাছে হেরে গেল পরাণগঞ্জের জুপিটার সংঘ।


খাসিটা কাঁঠাল পাতা চিবুচ্ছে ।এখন মনটা কিছুটা হলেও খারাপ হয়ে থাকতে পারে ।কেননা এবার কেউ না কেউ বিজয়ীর পুরস্কার হিসেবে পাবে ।খাসিটাকে ছুরির নীচে যেতে হবে এটাই নিশ্চিত ।যদিও অধিকাংশ গ্রামবাসী খাসিটার মাংসের চিন্তায় অস্থির ।

যথারীতি পুরস্কার হস্তান্তর করা হয়েছে ।বিজয়ীদের উল্লাসে পরাণগঞ্জের সন্ধ্যাটা অন্যরকম একটা অনুভূতিতে ভরাট ভরাট লাগছে ।

বিজিত পরাণগঞ্জের জুপিটার সংঘের টিমলিডার মারাত্মক ইনজুরির স্বীকার ।হাসপাতালে নেয়া হয়েছে ।অস্ত্রোপচার লাগবে ।


সরফরাজের বাড়িতে খাসিটার শেষ শয্যা ।তারপর গরম মশল্লার আবহে রাতটা পরিণত হবে আনুষ্ঠানিক বিজয়োল্লাসে।


সরফরাজ প্রস্তাব দিল, খাসিটা বেচে দিতে ।

সমর্থকদের বিস্মিত করল প্রস্তাবটা।


কিন্তু কেন? সেটা বললে খুশি হব-- টিম ম্যানেজারের জিজ্ঞাসা ।

সরফরাজ বললো,জুপিটার সংঘের দলনেতা ইনজুরির কবলে পড়ে এখন  হাসপাতালে ।ওর সুচিকিৎসার জন্য খাসিটা বেচে দিয়ে  ওনার জন্য ওষুধ পথ্যের ব্যবস্থা করা যেতে পারে ।

খাসিটা আমি কিনে নিতে চাই ।


সমর্থকদের সুতীব্র  উল্লাসে পরাণগঞ্জ দুলছে ।

No comments:

Post a Comment