Tuesday, October 19, 2021

হারানো কিশোরকাল - কৃষ্ণকিশোর মিদ্যা

হারানো কিশোরকাল
- কৃষ্ণকিশোর মিদ্যা



ফেলে আসা ধানখেত ডেকেছে আমায়,
ভুলে যাওয়া আমবন কেঁপেছে হাওয়ায়।
ভোরের দোয়েল পাখি দেয় আজও শিস,
সেজদাদা দিয়েছিল ,এক ঘুড়ি বকশিস।
এল যেই হু হু করে ,বেগবতী উত্তুরে বায়,
আমার রঙিন ঘুড়ি শূন্যে ,শূন্যে ঝাঁপায়।
পড়ে থাকে খাতা বই , নীল উড পেন্সিল,
ঘুড়ি খানা হয়ে গেল, লেজকাটা চিল।


সূর্য রাঙায় চোখ , স্কুল - বেলা হল ভাই,
পুকুরেতে ডুব দিয়ে ইস্কুলে চল যাই।
ইস্কুলে পড়াশুনো, বেত ,আর আছে ছুটি,
টিফিনের খেলাধুলো ,আমচুরি ,বন্ধুরা জুটি।

সবচেয়ে মজা হয়, গ্রীষ্মকালের মর্নিং স্কুলে,
সারাটা বিকেল জুড়ে কত ,কত খেলা চলে।
কাঠফাটা রোদ মেখে , ঘরে ফেরা হলে,
আম গাছে, জাম গাছে , ঝাঁপাঝাঁপি চলে।
তারপর তেল মেখে , সব ভাইবোন মিলে,
ঝপাং ঝপাং ঝাঁপ , টলটল পুকুরের জলে।
টুপ টুপ ডুব দেব, ঘোলাজলে হরেক সাঁতার,
বড়দের বকাবকি,হাঁক ডাক, ঠাকুমার মার।

দুপুরের খাওয়া শেষ, দাদাদের পাশে বসি,
হাতের লেখার পর, বাড়ির অঙ্কগুলো কষি।
উড়ু উড়ু করে মন, কখন বিকেল হবে হায়,
বন্ধুরা সব যেন, বেলাবেলি মাঠে পৌঁছায়।
নানান খেলায় মাতি , হৈ হৈ সারাটা বিকেল।
মারপিট , ঠেলাঠেলি , খেলা , মজাও অঢেল।

সন্ধ্যায় ঝোপেে ঝোপে জোনাকির আলো,
আঁধার - ঘোমটা পরে ,বসন্তের সন্ধ্যা নামিল।
উঠোনের মাদুরেতে বসি, সব ভাইবোন মিলে,
সরব পাঠে মন,কেরোসিন হ্যারিকেন জ্বেলে।

আকাশেতে মেঘ ভাসে,জ্বলে মিটিমিটি তারা,
কৈশোর অতীত আজ, আমি রই সর্বহারা !

No comments:

Post a Comment