Tuesday, September 21, 2021

অন্য নাটক - স্বপন দাস

অন্য নাটক
- স্বপন দাস

নাটকের রিহার্সাল চলছে। পরিচালক প্রতিটি চরিত্রকে গভীর ভাবে লক্ষ্য করছেন।সকলেই পেশাদার অভিনেতা। তাই প্রত্যেকের অভিনয়, তাদের প্রতিটি মুভমেন্ট, সংলাপ বলার কায়দা প্রায় সঠিক ।একটু আত্মশ্লাঘা  নিয়ে পরিচালক রিহার্সাল রুম থেকে বেরিয়ে এলেন।দেখলেন বাইরে এক ভিখারি রাস্তায় বসে ভিক্ষে করছে। বিচিত্র  তার আওয়াজ, বিচিত্র তার ভঙ্গিমা ।হটাৎ তার মনে হলো নাটকেও একটি ভিখারি চরিত্র আছে।পরিচালক ভাবলেন সেই ভিখারি চরিত্রটি একজন প্রকৃত ভিখারিকে দিয়ে করালে বেশ নতুনত্ব হবে। যেই ভাবা সেই কাজ। তিনি সেই ভিখারির দিকে এগিয়ে গেলেন।একটু বুঝিয়ে, কিছু প্রলোভন দিতেই সে রাজি হয়ে যায়। পরদিন  রিহার্সালে আসতেই তাকে একটা পঞ্চাশ টাকার নোট দিয়ে বললেন যাও পেট ভরে কিছু খেয়ে এসো আজ সারাদিন এখানেই থাকতে হবে। তারপর বাকি সকলকে ব্যাপারটা বুঝিয়ে বলতেই সকলেই একে অন্যের দিকে প্রশ্নসূচক দৃষ্টিতে তাকাতে শুরু করলেন। কিন্তু পরিচালককে প্রশ্ন করার সাহস কেউই দেখালেন না।
  গোটা একটা দিন পরিশ্রম করার পর তিনি দেখলেন ভিখারিটি প্রায় কিছুই রপ্ত করতে পারছে না। ডায়ালগ- এক্সপ্রেশন- মুভমেন্ট সবেতেই তালগোল পাকিয়ে ফেলছে। অথচ রাস্তায় সে ছিলো  স্বাভাবিক, সাবলীল ও এমন ভাবে এ্যাপিলিং যে প্রায় প্রত্যেকেই কিছু না কিছু পয়সা তার সামনে রাখা পাত্রে রেখে যাচ্ছিলো।

তিনি প্রায় হতাশ, তাকে পাশে বসিয়ে বললেন দেখ ওই লোকটি কি ভাবে এ্যাকটিং করছে। বলেই যিনি ভিখারির পার্ট করছিলেন তাকে ডেকে নিলেন। তার পর বললেন দেখো। ভিখারি অবাক হয়ে শুধু তাকিয়ে তাকিয়ে দেখছে। এবার পরিচালক কিছু জিজ্ঞেস করার আগেই সে হাতজোড় করে বলে উঠলো "বাবু আমি এ্যাক্টো জানিনা,বাবু আমি এ্যাক্টো করিনা,পেটের খিদে যখন চনমনিয়ে উঠে তখন ওই সব কথাগুলো,চোখের জল আপনা আপনি মুখ দিয়ে চোখ দিয়ে বেরিয়ে আসে।আর তখন ভগবান আপনাদের মত লোকেদের হাত দিয়ে কিছু না কিছু পাঠিয়ে দেন।কিন্তু   এখানে আসতে দিয়ে আপনি আমার চোখ খুলে দিলেন।দেখলাম ভর্তি পেটেও কত বড় ভিখারি হওয়া যায়। হাত জোড় করে বলছি বাবু এমন ভিখারি হতে আমি পারবো না।আমাকে আমার জায়গায় ফিরে যেতে দিন।"
পরিচালক নির্বাক দৃষ্টিতে তার অপসৃয়মান শরীরের দিকে তাকিয়ে থাকলেন।

No comments:

Post a Comment